নওগাঁয় বাসা থেকে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

নওগাঁয় বাসা থেকে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

নওগাঁ সদর উপজেলার চকরামচন্দ্র এলাকার বাসা থেকে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (৯ অক্টোবর) সকালে আয়েশা সিদ্দিকা চৈতি নামে ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি সদর উপজেলার ডাক্তার পাড়া এলাকার মেহরাব হোসেন শুভর স্ত্রী। ঘটনার পর থেকেই শুভ পলাতক। ময়নাতদন্তের জন্য দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মরদেহটি নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল। শুভর পরিবারের বরাত দিয়ে ওসি জানান, স্ত্রী চৈতিকে নিয়ে সদর উপজেলার চকরামচন্দ্র এলাকায় ভাড়া থাকতেন শুভ। তাদের মধ্যে প্রায়ই পারিবারিক কলহ হতো। শুক্রবার রাতেও তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। পরে চৈতি অভিমান করে অন্য ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে ফ্যানের সঙ্গে ওড়নার দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তাকে দেখে পুলিশকে জানানো হয়।

গৃহবধূর বাবা কালাম হোসেন বলেন, ‘ভোর রাতে মেয়ের শ্বশুর ফোন করে জানায়, চৈতি ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আসলে আমার মেয়েকে অত্যাচার করে মেরে ফেলেছে। আমি জামাইসহ পরিবারের সবার কঠিন শাস্তি চাই।’ নওগাঁ সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জান্নাতুন ফেরদৌসী জানান, ভোরে মরদেহটি উদ্ধারের সময় গৃহবধুর শ্বশুর-শাশুড়ি উপস্থিত ছিলেন। তবে স্বামীকে পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password