এবার নওগাঁয় প্রবাসীর স্ত্রীকে চাচা ও দেবর কর্তৃক ধর্ষণ

এবার নওগাঁয় প্রবাসীর স্ত্রীকে চাচা ও দেবর কর্তৃক ধর্ষণ

চাচাত দেবর ও সম্পর্কে চাচা কর্তৃক পালাক্রমে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক প্রবাসীর স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায়। প্রবাসীর স্ত্রী গৃহবধূ (১৮) কে একা পেয়ে চাচাত দেবর ও প্রতিবেশী চাচা গভীররাতে ঘরের জানালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগে উঠেছে।

এঘটনায় মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ধর্ষক চাচাতো দেবর রনি (২১) ও প্রতিবেশি চাচা দেলোয়ার (৩০) এর বিরুদ্ধে রানীনগর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার ৩ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে উপজেলার কালিগ্রাম এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে। ধর্ষক রনি হোসেন রানীনগর উপজেলার কালীগ্রাম মন্সিপাড়া গ্রামের রহিদুল ইসলামের ছেলে ও দেলোয়ার হোসেন কালীগ্রাম ডাকাহার পাড়া গ্রামের জাহিদুল ফকিরের ছেলে বলে জানা গেছে।

ভিকটিম গৃহবধূ জানান, প্রায় দু’ বছর আগে একই গ্রামের প্রবাসী এক যুবকের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে সে স্বামীর বাড়িতে থাকতো। প্রায় ৬ মাস ধরে বাবার বাড়িতে আছে। শনিবার রাতে সে তার বাবার বাড়িতে একটি ঘরে ঘুমিয়ে ছিলো। সেদিন বাড়িতে কেউ ছিল না। রাত আনুমানিক ১২ টারদিকে ঘরের জানালা ভেঙে চাচাতো দেবর রনি ও প্রতিবেশী চাচা দেলোয়ার ঘরে প্রবেশ করে। আমি তাদের দেখতে পেলে তারা দু’জন আমার চোখ-মুখ বেঁধে আমাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় “ভিকটিম” প্রবাসীর স্ত্রী বাদি হয়ে মঙ্গলবার দিনগত রাতে থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেরাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password