আবারো ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইলেন ডা. মুরাদ

আবারো ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইলেন ডা. মুরাদ

ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেইজে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে আজ বুধবার আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সদ্য মন্ত্রিত্ব হারানো ডা. মুরাদ হাসান। স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো 'মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পরম শ্রদ্ধেয় মমতাময়ী মা, বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা, আমি কোনো ভুল করে থাকলে আল্লাহর ওয়াস্তে আমাকে মাফ করে দিবেন। আপনি যে সিদ্ধান্ত দিবেন তা আমি সবসময়ই মাথা পেতে নিবো আমার বাবার মতো।

জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয় শেখ হাসিনা'

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেইজে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে ক্ষমা চান তিনি। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, ‌‘আমি যদি কোন ভুল করে থাকি অথবা আমার কথায় মা-বোনদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকি তাহলে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী মা দেশরত্ন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সকল সিদ্ধান্ত মেনে নিবো আজীবন। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।’ বিএনপির এক শীর্ষ নেতার মেয়েকে নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য দেওয়ার মধ্যেই ডা. মুরাদ হাসানের একটি অডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

ঢাকাই সিনেমার নায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে ফোনালাপের ওই অডিওতে মুরাদ হাসানকে অশ্লীল কথাবার্তা ও নায়িকাকে ধর্ষণের হুমকি দিতে শোনা যায়। এ ঘটনায় দেশব্যাপী তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সরকার। এরপর সোমবারই মুরাদকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার পদত্যাগপত্র জমা দেন মুরাদ।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password