চরফ্যাশনে এক শিক্ষক জেল হাজতে

চরফ্যাশনে এক শিক্ষক জেল হাজতে

ঘরভিটা দখল ও মারামারি করে মামাকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে ২০২১ সালে আদালতে দায়েরকৃত একটি মামলায় চরফ্যাশন উপজেলার উত্তর হাজারীগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক ও মামলার ২নং আসামি মাহবুবুর রহমানকে জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার (২২মে) দুপুরে উপজেলার সিনিয়র জুডিসিয়াল আদালতে হাজির হলে তার জামিন আবেদন বাতিল করে জেল হাজতে পাঠান বলে জানান এডভোকেট জাবেদ করিম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২১সালের সেপ্টেম্বরের ১২ তারিখ দুপুরে হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের বাজারে দুইটি ঘরভিটার বিরোধ নিয়ে হত্যা চেষ্টা মামলার বাদি গোলাম ফারুক গংদের সঙ্গে বিরোধের জের ধরে গোলাম ফারুককে ঘর ভাড়াটিয়া আবুল কালাম মেম্বারের নেতৃত্বে শিক্ষক মাহবুবুর রহমান,জসিম উদ্দিন,সামছুদ্দিন,সজিব ও বাবুল সহ আরো অন্তত ১০ থেকে ১২জন একত্রিত হয়ে হামলা করে ধারালো অস্ত্র,দা’ছেনি ও লাঠিসোঠা দিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর এবং কুপিয়ে জখম করে হত্যা চেষ্টা করে।

ভূক্তভোগী ফারুক মিয়া অভিযোগ করে বলেন, আমাদের চেয়ারম্যানবাজারের পশ্চিম পাশে অবস্থিত আশ্রাফিয়া মেডিকেলে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। ঘটনার দিন দুপুরে কালাম মেম্বার ও তার ছেলে মাহবুবসহ অন্যান্যরা একত্রিত হয়ে পূর্ব-পরিকল্পীতভাবে আমাকে দোকান ভিটা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্ছেদে অস্ত্র নিয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী সঙ্গে করে নিয়ে এসে দোকান ঘরের সামনে এসে আমার দোকান থেকে আমাকে বের হওয়ার জন্য অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে।

আমি ও আমার পরিবারের লোকজন বাঁধা দিলে আামার এলোপাথাড়ি মারধর করে হত্য চেষ্টা চালিয়ে দোকান লুটপাট ও জোর জবর দখলের চেষ্টা চালিয়ে ব্যার্থ হয়। আমি হাসপাতাল থেকে সুস্থ্য হয়ে একটি মামলা দায়ের করি এবং ওই মামলায় আসামি মাহবুবকে বিজ্ঞ আদালত জেলে পাঠিয়েছেন।

মন্তব্যসমূহ (০)