স্ত্রীর অধিকার পেতে স্বামীর বাসায় অনশন পর অনশন করে যাচ্ছেন এই নারী

নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার ফতুল্লায় স্ত্রীর অধিকার পেতে রুমকী মনি (২৪)তার স্বামীর বাড়ীতে অনশনে করছেন। শনিবার (১৭এপ্রিল) ফতুল্লার দাপা নুর মসজিদস্থ রুমকী তার স্বামীর বাড়ীতে দুপুর থেকে অবস্থান করছে বলে জানা যায়।

মেয়েটি বাড়ীতে অবস্থানের পর পরই ছেলে ওই বাড়ী থেকে কৌশলে পালিয়ে যায়। ঘটনার সংবাদ পেয়ে ফতুল্লা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মেয়েকে বুঝিয়ে তার পিত্রালয়ে যাওয়ার অনুরোধ করে ব্যর্থ হলে এক পর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চলে আসে। এ রিপোর্ট লেখা ( রাত  ১০টা) পর্যন্ত মেয়েটি তার স্বামীর বাসার সামনে অবস্থান করছে বলে জানা যায়।
 
মেয়েটি জানায়,প্রেমের সম্পর্কের কারণে সে তার প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে ২০১৯ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর ফতুল্লার দাপা নুর মসজিদ এলাকার আব্দুল খায়েরের পুত্র রবিউল আলম লাভলুর (২৬) সাথে ইসলামীক শরিয়ত মোতাবেক কাজীর মাধ্যমে বিয়ে হয় দক্ষিণ শিয়াচর ইয়াদ আলী মসজিদ এলাকার ফজর আলী মীরের মেয়ে রুমকী মনির।

বিয়ের পর তারা ফতুল্লা থানাধীন ভুইঘর এলাকায় ভাড়ায় বেশ কিছুদিন বসবাস করে।বিয়ের চার মাস পর তার স্বামী তাকে না বলে ভাড়া বাসায় তাকে ফেলে রেখে চলে আসে। পরবর্তীতে সে তার স্বামীর বাসায় এলে তার শ্বশুড় বাড়ীর লোকজন তার সাথে খারাপ ব্যবহার করে তাকে তাড়িয়ে দেয়। এ নিয়ে গত দুই বছরে থানা পুলিশ,সামাজিক বিচার-শালিসী হলেও তারা তাকে বাসায় তুলছে না।

এক পর্যায়ে সে তার স্বামী ও শ্বশুরের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করে।পুলিশ তাদের কে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।তাকে স্ত্রী হিসেবে মেনে নেওয়ার কথা বললে সে আদালতে দাড়িয়ে তার স্বামী ও শ্বশুর কে জামিনে বের করে নিয়ে আসে।

কারাগার থেকে বেরিয়ে এসে তারা তাকে মেনে নেয়া তো দূরের কথা উল্টো মিথ্যে মামলা দিয়ে ফাসানোর হুমকি প্রদান করে।আর তাই কোন উপায়ন্তর না পেয়ে স্ত্রীর অধিকার আদায়ে আজ স্বামীর বাড়ীতে অবস্থান করেছেন এবং তা মিমাংসা না হওয়া পর্যন্ত এখানেই অবস্থান করবেন বলে তিনি জানান।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন