স্ট্রোক মানেই মৃত্যু নয়, যা করলে বাঁচবে রোগী?

স্ট্রোক মস্তিষ্কের রক্তনালির রোগ। তবে এই রোগ সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি না। আর এই রোগ সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা থাকা প্রয়োজন। কোনো কারণে যদি মস্তিষ্কের রক্তনালি বন্ধ হয়ে যায় বা ফেটে যায় তবে স্ট্রোক হয়। মনে রাখতে হবে, স্ট্রোক কখনও আঘাতজনিত কারণে হয় না।

রক্তনালি বন্ধ হওয়ার কারণে বেশি স্ট্রোক হয়। শতকরা প্রায় ৮০ ভাগ স্ট্রোক হয় রক্তনালি বন্ধ হওয়ার কারণে। তাই স্ট্রোকের লক্ষণ দেখলেই যত দ্রুত সম্ভব হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করানো প্রয়োজন।

স্ট্রোক কি? মস্তিষ্কের অভ্যন্তরে রক্ত সরবরাহে ব্যাঘাত ঘটার ফলে যে দ্রুত জটিলতার দেখা দেয় তাকে বলা হয় স্ট্রোক। স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়া মানেই জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে চলে

যাওয়া। এর ফলে বেঁচে যাওয়া রোগী পঙ্গুও হয়ে যেতে পারে। তবে নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন আপনাকে স্ট্রোকের ঝুঁকিমুক্ত রাখতে পারে।

যে সব লক্ষণে বুঝবেন স্ট্রোক

১. যদি কথা বলতে বলতে আচমকা জিভ অসাড় হয়ে যাওয়া ও অল্প সময়ের জন্য চোখে অন্ধকার হয়ে যতে পারে।

২. কাজ করতে করতে হাত-পা বা শরীরের কোনো একদিক হঠাৎ পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে যাওয়া।

৩. চোখে দেখতে সমস্যা হয়। ঝাপছা দৃষ্টি বা ডাবল ভিশন দেখা

৪. কথা বলতে অসুবিধা ও ঢোক গেলা সমস্যা। মুখ থেকে লালা বেরুতে থাকে অথবা সম্পূর্ণ জ্ঞান হারিয়ে পড়ে যায় রোগী।

কী করবেন

১. স্ট্রোক আটকাতে অবশ্যই প্রেশার, সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। ২. ওজন স্বাভাবিক রাখতে হবে ও নিয়ম করে অন্তত আধা ঘণ্টা একটানা হাঁটতে হবে।।

৩. বাড়িতে রান্না টাটকা সব্জি ও মাছ-মাংস খেতে হবে। বাইরে খাওয়া বন্ধ করুন।

৪. ধূমপান ও মদ্যপানের বদভ্যাস ছাড়তে হবে।

৫. মাইনর অ্যাটাক বা টিআইএ হওয়ার পর অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

মন্তব্যসমূহ (০)


লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন