তিন বন্ধুর উদ্যোগে রাজধানীতে বৃক্ষরোপণ

যখন ঢাকা শহরে গাছ কেটে অট্টালিকা নির্মাণের প্রতিযোগিতা চলছে সেখানে তিন বন্ধু নিজস্ব উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। মেহেদী হাসান শিশির, মিজানুর রহমান এবং সুদীপ্ত সালেহীন তাদের নিজস্ব অর্থায়নে রাজধানী বাসাবোর কদমতলা এলাকায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেন। তারা প্রত্যকেই ‘কদমতলা পূর্ব বাসাবো উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের ‘৯৯ ব্যাচের শিক্ষার্থী। 

 

২৮ মে শুক্রবার সকাল থেকে তারা নিজেদের টাকায় কদমতলা এলাকায় আনুমানিক ৫০টি গাছ লাগান। এসবের মধ্যে রয়েছে কদম, নিম, কৃষ্ণচূড়া, অর্জুন, হরতকি, বকুল, শিউলি, জারুল মাধবীলতা, সোনালু ইত্যাদি।

 

বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্যোক্তা মেহেদী হাসান শিশির কর্মসূচি সম্পর্কে বলেন, আমরা কদমতলা পূর্ব বাসাবো স্কুল এন্ড কলেজের এসএসসি ৯৯ ব্যাচের তিন বন্ধু সম্পুর্ণ ব্যক্তিগত উদ্যোগে আমাদের এলাকায় বিভিন্ন বাড়ির সামনে, রাস্তার পাশে অথবা পরিত্যক্ত জায়গায় যতটুকু জায়গা আছে সেখানেই একটু সবুজ গড়ে তোলার জন্য কাজ শুরু করেছি। মানসিক প্রশান্তি এবং নতুন প্রজন্মকে প্রকৃতির প্রতি ভালোবাসার জন্যই আমাদের এই বৃক্ষরোপণ। ভবিষ্যতে পুরো ঢাকা শহরে আমাদের কার্যক্রম প্রসারিত হবে। আমরা আমাদের এলাকার উদ্যোমী তরুনদের নিয়ে গাছ রোপন শুরু করেছি। ফলের বীজ সংগ্রহ করছি কিছুদিন পর ঢাকার নিম্নাংশ যেমনঃ নন্দীপাড়া, কুসুমবাগ, মান্ডা, শেখের জায়গা ও মানিদিয়ায় আমরা বীজ রোপন করবো যাতে গরীব ও অসহায় মানুষের ফলের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি সবুজায়ন হয়।

 

পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণের কোন বিকল্প নেই। সবুজ বেষ্টনী গড়ে তোলার জন্য গাছই প্রথম ও প্রধান উপাদান। আমাদের উচিত একটি গাছ কাটলে তিনটি করে গাছ লাগান। গাছ অক্সিজেন ত্যাগ করেই আমাদের বাঁচিয়ে রেখেছে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে চলছে। একেকটি গাছ যেন একেকটি নগদ টাকার ব্যাংক। 

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password