পথশিশুকে নির্যাতন ও ধর্ষণ করা মূল হোতা গ্রেফতার

 

ঢাকার কেরানীগঞ্জে শিশু ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনার মূল হোতা সিদ্দিক ওরফে টাইগার সিদ্দিককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এর সাথে আরও যারা জড়িত তাদের শনাক্ত করা হয়েছে। ভুক্তভোগীকে নির্মম অত্যাচার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী ও তদন্তকারীরা।

ঢাকার কেরানীগঞ্জে অমানবিকভাবে শিশু ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনার মূল হোতা সিদ্দিক ওরফে টাইগার সিদ্দিককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এই ঘটনার সাথে আরও যারা জড়িত তাদের শনাক্ত করা হয়েছে। ভুক্তভোগীকে নির্মম অত্যাচার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী ও তদন্তকারীরা।

শুক্রবার শেষ রাতে ১০/১১ বছরের ওই শিশু মেয়েকে তুলে আনে। ভোর থেকে কয়েক ঘণ্টা নির্মম নির্যাতন করে সিদ্দিক ও তার সহযোগীরা। তারপর করা হয় ধর্ষণ। মোবাইল ফোনে সেই ভিডিও ধারণ করে অপরাধীরা। শিশুটির চিৎকারে ঘুম ভাঙে পাশের ঘরের বাসিন্দাদের। পরে মেয়েটিকে উদ্ধার করতে গেলে পালিয়ে যায় সিদ্দিক।

পরে অচেতন অবস্থায় উদ্ধারের পর ঢাকা মেডিকেলের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে শিশুটিকে। ধারণ করা ভিডিওটি ফেসবুকে আসতে না আসতেই অপরাধীর পেছনে ছোটে র‍্যাব। শনিবার সকালে সিদ্দিককে গ্রেফতার করে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। ভুক্তভোগীর কাছ থেকে বক্তব্য নিয়ে একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, ভুক্তভোগী মেয়েটি ভাসমান ছিল। রাজধানীর লক্ষ্মীবাজারের ভিক্টোরিয়া পার্ক এলাকায় পথশিশু হিসেবেই থাকতো সে। তার সাথে পরিবারের কেউ থাকে না। নির্যাতনের ভিডিও ধারণকারীকেও পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে। সিদ্দিকের সাথে আরও কারা ছিল তাদের শনাক্ত করে আটকের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password