গভীর নলকুপের পানির সাথে বের হচ্ছে গ্যাস

চট্টগ্রামের নগরের চান্দগাঁও থানার মোহরা এলাকার একটি বাড়িতে গভীর নলকুপের পানির সাথে বের হচ্ছে গ্যাস। যা দুদিনেও বন্ধ হয়নি। এর সঠিক কারণ নির্ণয় করতে পারেনি কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি। এরই মধ্যে বাপেক্সের বিশেষজ্ঞ দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও নমুনা সংগ্রহ করেছে।চট্টগ্রামের মোহরায় একটি বাড়িতে গভীর নলকুপের পানির সাথে বের হচ্ছে গ্যাস।

যা দুদিনেও বন্ধ হয়নি। এর সঠিক কারণ নির্ণয় করতে পারেনি কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি। এরই মধ্যে বাপেক্সের বিশেষজ্ঞ দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও নমুনা সংগ্রহ করেছে। মোহরায় মঙ্গলবার (৮ জুন) রাত সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হয় গ্যাস বের হওয়া। ওই ভুক্তভোগী পরিবার আতঙ্কে বসতঘরের বাইরে অবস্থান করছেন।

ভুক্তভোগী পরিবারের তসলিম উদ্দিন বলেন, গত ১০ বছর আগে একটি নলকূপ বসিয়েছিলাম। পরে সেটির পানি খারাপ হওয়াতে বন্ধ করে দিই। গতকাল রাত সাড়ে ১০টা থেকে ওই নলকূপের স্থান থেকে বুদবুদ করে গ্যাস বের হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা ফায়ার সার্ভিসে যোগাযোগ করি। কিন্তু এখনো সমাধান হয়নি। এছাড়া কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনকে ফোন দিলে তারা বলেন, সেখানে তাদের কোনো লাইন নেই। আবার জাতীয় জরুরি সেবা সংস্থা ৯৯৯-এ ফোন দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে।

কিন্তু কিছুক্ষণ অবস্থান করে বিভিন্ন দফতরে ফোন দিয়ে তারাও চলে যায়। কিন্তু এখনো এর সমাধান হয়নি। তিনি আরও বলেন, সবশেষ বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের একটি টিম ঘটনাস্থলে আসে। তারা চেক করে দেখে যে, তাদের লাইন থেকে গ্যাস বের হচ্ছে কি-না। বিষয়টি এখনও সমাধান না হওয়ায় আমরা আতঙ্কে ঘরের বাইরেই রয়েছি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের উপ-ব্যবস্থাপক মাহমুদুল হাসান বলেন, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে আমাদের টিম গেছে। তারা চেক করে দেখছে এটি আমাদের লাইন কি-না। তবে ওই এলাকায় আমাদের কোনো লাইন ছিল না।

চান্দগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আমির হোসেন বলেন, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে একটি বসতঘরে পানির সঙ্গে বুদবুদ করে গ্যাস বের হওয়ার খবরে টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে প্রায় দেড় ঘণ্টা অবস্থান করে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে ফোন দিয়ে বিষয়টি জানাই। বিষয়টি নিয়ে তো আসলে আমাদের করার কিছু নেই। তারপরও যেকোনো সমস্যা হলে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য ভুক্তভোগী পরিবারকে মোবাইল নম্বর দিয়ে আসি।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password