শিশু অপহরণের ১০লাখ টাকা মুক্তিপণ মিঠাতে চেয়েও মিললো লাশ

শিশু অপহরণের ১০লাখ টাকা মুক্তিপণ মিঠাতে চেয়েও মিললো লাশ

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর রায়পুরায় তৃতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচন চলাকালীন গত ২৮ নভেম্বর দুপুরে মালয়েশিয়া প্রবাসীর বাড়ি থেকে অপহরণ হয় এক শিশু। এরপর পরিবারের সদস্যের কাছে ইন্টারনেট নাম্বারের মাধ্যমে দশলাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে অপহরণ চক্রের সদস্যরা।

অপহৃত শিশু ইয়ামিন (৮) উপজেলার বাখরনগর ইউনিয়নের উত্তর বাখরনগর গ্রামের হাজী পাড়া এলাকার প্রবাসী জামাল মিয়ার ছেলে। পুলিশ ও স্বজনরা জানান, ইউপি নির্বাচনের দিন দুপুর থেকে ইয়ামিন নিখোঁজ হয়। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করা হয়। ওইদিন সন্ধ্যায় শিশুর মা’ সামসুন্নাহার বেগমের মুঠোফোনে ফোন আসে ইয়ামিনকে অপহরণ করা হয়েছে।

তাকে জীবিত পেতে হলে ১লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। এরপরদিন সামসুন্নাহারের কাছে আবার ফোন আসে মুক্তিপণ আরো বেশি দিতে হবে। এভাবেই তৃতীয়দিন চলে যায়। এক পর্যায় অপহরণ চক্রের সদস্যরা ১০লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে প্রবাসীর স্ত্রী সামসুন্নাহারের কাছে। এদিকে অপহৃত ইয়ামিনকে জীবিত পেতে ১০লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতেও রাজি হয় তার পরিবার।

মুক্তিপণের টাকা দিতে ঢাকা সহ একাধিক স্থানে গিয়েও মিলেনি শিশু ইয়ামিন ও অপহণকারীর ঠিকানা। এবিষয়ে রায়পুরা থানায় একটি অপরণ মামলা করা হয়। এরপর অপহৃত শিশু ইয়ামিনকে উদ্ধার ও চক্রটিকে ধরতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

অবশেষে গ্রামের পাশে একটি ফসলী খেত থেকে শরীর বিকৃত অবস্থায় হাড় দেখা যাচ্ছে এমনবস্থায় শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। রায়পুরা থানার পরিদর্শক (দতন্ত) গোবিন্দ সরকার জানান, শিশু ইয়ামিন অপহণের বিষয়ে থানায় একটি মামলা রুজু করেছেন তার মা’ সামসুন্নাহার। শুক্রবার সকালে শিশুটির মরদেহের খোঁজ মিলে। পরে তা উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password