নরসিংদীতে তরুণী হেনস্থা, পক্ষে বিপক্ষে মানববন্ধন

নরসিংদীতে তরুণী হেনস্থা, পক্ষে বিপক্ষে মানববন্ধন

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনে তরুণী হেনস্তার ঘটনায় এক নারী গ্রেপ্তারের পর পক্ষে বিপক্ষে মানববন্ধন করেছে দুইটি পক্ষ। বৃহস্পতিবার ২ মে সকাল ১১ টার দিকে নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনে একদল প্রগতিশীল নারী এবং বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে নরসিংদী প্রেসক্লাবের সামনে স্থানীয় জনগণ নামক একটি ব্যানারে আরেকটি পক্ষ মানববন্ধ করে।

দুটি পক্ষের একটি পক্ষ গ্রেপ্তার মার্জিয়ার মুক্তি দাবি করেছে এবং অন্য পক্ষ মার্জিয়ার সর্বোচ্চ শাস্তি চেয়েছে। রেলওয়ে স্টেশনে অশ্লিল পোষক পরিধানের অজুহাতে তরুণী হেনস্থার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত নারী মার্জিয়াকে মুক্তির দাবি করে নরসিংদীর সর্বস্তরের জনগণ নামক ব্যানারে নরসিংদী প্রেস ক্লাবের সামনে সকাল সাড়ে ১১টায় এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

নরসিংদী ও ঢাকায় বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ ছাত্র নেতৃবৃন্দ ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধিরা এ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন। এসময় মানববন্ধন থেকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃত নারী মার্জিয়াকে মুক্তির দাবী জানানো হয়। মানবন্ধনে স্থানীয় এডভোকেট শিরিন সুলতানা শেলী বলেন, ওই তরুণীর সাথে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্খিত ঘটনার ভিডিওটি দেখেছি আমরা। সেখানে গ্রেপ্তার হওয়া মার্জিয়ার অবস্থান আমাদের কাছে স্পষ্ট।

যার জন্যে তাকে এইভাবে গ্রেপ্তার করে ৩ দিনের রিমান্ড দেয়ার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এর আগে সকাল ১১টায় গ্রেপ্তারকৃত মার্জিয়াসহ হেনস্থার ঘটনায় জড়িত অন্যান্যদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে মানববন্ধন করেছে প্রগতিশীল নারী নেতৃবৃন্দ। নরসিংদী রেল স্টেশনের মুল ফটকের সামনে তারা এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

স্থানীয় নারী কল্যান সংস্থা মাদারস ডেভলাপমেন্ট সোসাইটির সহযোগিতায় মানববন্ধনে একশন এইড বাংলাদেশ, জাতীয় নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ফোরাম, নারী নিরাপত্তা জোট, উইক্যান ইন্টারন্যাশনালসহ বেশ কিছু নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ঢাকা থেকে এসে মানববন্ধনে অংশ নেয়। তারা রেল স্টেশনের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে নারীদের নিরাপত্তার দাবি করেন।

সেই সাথে নারীদের পোষাক পরিধানে ইচ্ছার বিরোধিতা প্রগতিশিলতা পরিপন্থি দাবী করে স্বাধীনতা হরণ হয় এমন কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহব্বান করা হয়। এই মানববন্ধনে রাজধানী ঢাকা এবং নরসিংদীর বিভিন্ন সংগঠনের অন্তত ৫০ জন নারী কর্মী উপস্থিত ছিলেন। রেলওয়ে স্টেশনে মানববন্ধন করা আমরাই পাড়ি জোট নামে এক সংগঠনের প্রধান নির্বাহী জিনাত আরা হক তার বক্তব্যে বলেন, রেলওয়ে স্টেশন হোক আর যেইখানেই হোক কারও পোশাকের জন্য কাউকে হেনস্তা করা অপরাধ।

নেটস নামে একটি সংস্থার কর্মী আফসানা আক্তার তাদের মানববন্ধনে বলেন, কোনো নারীর সাথে এই রকম আচরণের তীব্র নিন্দা জানাই। গ্রেপ্তার হওয়া নারীর সর্বোচ্চ শাস্তি চাই আমরা। প্রসঙ্গত, গত ১৮ মে বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া এক তরুণী ও তার দুই বন্ধুর সাথে তরুণীর পড়নে আধুনিক পোশাক পড়ায় হেনস্তার শিকার হন। এসময় কুরুচিপুর্ন মন্তব্যের পাশাপাশি এক নারী ওই তরুণীর জামা ধরে টান দেন, ছবি তুলেন এবং গালাগালি করেন।

যার ভিডিও ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে। এরপর, সিসিটিভির ফুটেজ বিশ্লেষণ করে গত ২০ মে (শুক্রবার) রাত ৯টার দিকে নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে মো. ইসমাইল নামে একজনকে আটক করে পুলিশ। পরদিন শনিবার পুলিশের করা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। সবশেষ, রবিবার (২৯ মে) দিবাগত রাতে নরসিংদীর শিবপুরের ইটাখোলা এলাকায় বোনের বাড়ি হতে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হন হেনস্তার ঘটনার মূল হোতা মার্জিয়া আক্তার ওরফে শিলা।

পরদিন সোমবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় রেলওয়ে পুলিশের করা ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন আদালতে করলে। আদালত মার্জিয়ার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। র‌্যাব ১১ নরসিংদীর ক্যাম্প কমান্ডার ফ্লাইট লেফটেনেন্ট তৌহিদুল মবিন খানের ভাষ্য, অভিযুক্ত ওই নারী পেশায় ঘটক। সে একেক জায়গায় একেক নাম - পরিচয় ব্যবহার করতো।

যার ফলে শিলা, শায়লা ইত্যাদি নামে পরিচিত সে। তবে, জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী তার নাম মার্জিয়া আক্তার। নরসিংদী মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) হারুনুর রশিদ বলেন, মানববন্ধন করা সবারই অধিকার আছে। আমরা দুটি পক্ষকেই নিরাপত্ত্বা দিয়েছি। কোনো পক্ষেরই কেউ আটক নেই।

মন্তব্যসমূহ (০)