শিবপুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অম্যান্য করে বাড়ি নির্মাণ

শিবপুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অম্যান্য করে বাড়ি নির্মাণ

নরসিংদী প্রতিনিধি : শিবপুরে আদালতের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার আইয়ুবপর ইউনিয়নের ভুরভুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। অভিযোগ রয়েছে, ভুরভুরিয়া গ্রামের সেকান্দরের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম তার সহযোগীদের নিয়ে প্রতিবেশী সরকারি কলেজ শিক্ষক জাহিদ হাসান ও সরকারি স্কুলের কর্মচারী নাজমা বেগমের পৈতৃক জমি দখলের জন্য বাড়ি নির্মাণ করার চেষ্টা করে।

জানা যায়, মুজিবুর রহমানের এক ছেলে কলেজ শিক্ষক জাহিদ হাসান বর্তমানে পিএইচডি ডিগ্রির জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছেন অপর ছেলে রাসেল অস্ট্রেলিয়া এবং মেয়ে নাজমা বেগম নরসিংদী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চাকরির সুবাধে বাড়িছাড়া। বাড়িতে একমাত্র বৃদ্ধা মা বসবাস করায় লোকশূন্য বাড়ি। এ অবস্থায় প্রতিবেশী জাহাঙ্গীর ও রুবি বেগম জায়গা জমি দখলের অপচেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় জমি রক্ষার্থে নাজমা বেগম আদালতের শরণাপন্ন হয়। আদালত আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ওই জায়গায় উভয়পক্ষের জন্য স্থগিতাদেশ প্রদান করে।

শিবপুর থানার এএসআই নুরুল ইসলাম ওই জমিতে স্থগিতাদেশ কার্যক্রমের জন্য উভয়পক্ষকে নোটিশও প্রদান করেন। কিন্তু আদালতের এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ২ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) সকালে জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে রুবি, কুহিনুর, দেলোয়ার, হাবিবুর ও আবুল বাশার ওই জায়গায় বাড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করে। শিবপুর থানা পুলিশকে বিষয়টি জানালে থানার এএসআই নুরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা পায়। এরই প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ কাজ বন্ধ রাখর নির্দেশ দেন এবং আদালতের প্রতি সম্মান জানাতে অনুরোধ করেন। থানা পুলিশ নির্মাণ কাজ বন্ধ করে চলে আসার সঙ্গে সঙ্গে তারা আবার নির্মাণ কাজ শুরু করেন।

শিবপুর মডেল থানার ওসি সালাহ উদ্দিন আহমেদ এ ঘটনার বিষয়ে জানান, ভুরভুরিয়া গ্রামে ওই জমির ঘটনায় আদালতের আদেশ বাস্তবায়নে আইন শৃঙ্খলা রক্ষার্থে থানা পুলিশের মাধ্যমে উভয়পক্ষকে নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। নোটিশ প্রদানের পরও একটি পক্ষ আদালতের আদেশ অমান্য করেছে মর্মে খবর পেয়ে থানা পুলিশকে পাঠালে সেখানে গিয়ে পুনরায় কাজ বন্ধ করে দিয়ে আসে। এখন আইন অনুযায়ী যা করার তাই করা হবে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password