নওগাঁর মান্দায় জমি নিয়ে বিরোধে এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে জখম

নওগাঁর মান্দায় জমি নিয়ে বিরোধে এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে জখম

নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের ধরে এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের নীলকুঠি বাইপাস মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তির নাম মোতালেব হোসেন (৪২)। তিনি শ্রীরামপুর গ্রামের দবির উদ্দিনের ছেলে। সতীহাট বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রায়হান সাইকেল ষ্টোর নামে তাঁর একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। মারপিটের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, শ্রীরামপুর গ্রামের নাদের আলী খাঁ (৫৫) ও তাঁর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম ফিরোজ (২৮)। চিকিৎসাধীন মোতালেব হোসেন জানান, ২০১৯ সালে ৯ সেপ্টেম্বর শ্রীরামপুর মৌজায় সোয়া ১৭ শতক সম্পত্তি একই এলাকার গোলাম হোসেনের কাছ থেকে কবলা নেন। এরপর থেকে ওই সম্পত্তি ভোগদখল করছিলেন। এ অবস্থায় শ্রীরামপুর গ্রামের মৃত আব্দুর কাদের খাঁয়ের ছেলে আল মামুন বাবু ওই সম্পত্তি নিজের দাবি করে বিভিন্ন সময় বাধা ও হুমকি দিচ্ছিলেন। এসব ঘটনায় গত ১৮ অক্টোবর নওগাঁ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বাবুসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি।

ভুক্তভোগী মোতালেব হোসেন আরও বলেন, এ মামলায় আদালতে জামিন নিতে গিয়ে জেলহাজতে যান আল মামুন বাবু। এরপর থেকে বাবুর পরিবারের লোকজন তাঁকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। জের ধরে বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নীলকুঠি বাইপাস মোড়ে তাঁর ওপর হামলা করেন প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনায় মোতালেব হোসেনের ছেলে রায়হান আলী বাদি হয়ে বুধবার রাতেই মুক্তার হোসেন, রতন, নাদের আলীঁ খাঁ, জাহাঙ্গীর আলম ফিরোজসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা করেন।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রাতেই অভিযান চালিয়ে নাদের আলী খাঁ ও ফিরোজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার তাদের নওগাঁ জেলহাজতে পাঠানো হয়।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password