ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিন গংদের থেকে রক্ষা পাওয়ার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিন গংদের থেকে রক্ষা পাওয়ার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের মানিকদী নামাপাড়ার ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিন গংদের অত্যাচার থেকে রক্ষা পাওয়ায় দাবিতে আজ ৩ অক্টোবর ২০২১খ্রি. সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাব, মওলানা আকরম খাঁ হলে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী মুঃ বোরহান উদ্দিন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমি মুঃ বোরহান উদ্দিন, পিতা— মৃতঃ আব্দুল হামিদ, প্রধানীয়া ২৮০/১, মানিকদী নামাপাড়ায় ক্রয়সূত্র জমিতে বিগত ২২ বছর যাবৎ বসবাস করিয়া আসিতেছি। এসএ—৮৫৭, দাগ নং—৬২৭, সিএস—৮৫৭, এস.এ আর এস. রেকর্ডে মালিক ছিলেন হাজারী মন্ডল। তার মৃত্যুর পর তার একমাত্র পুত্র তোরাব আলী মোল্লার তিন পুত্র, স্ত্রী আক্রমন নেছা ওয়ারিশসূত্রে বিক্রয় করেন মোঃ সিরাজ মিয়ার কাছে।

১২/০৪/১৯৮০ সালের দলিল নং—১০৫৩। সিরাজ মিয়া বিক্রয় করেন হাফেজ আলী আকবরের কাছে। আমি ক্রয় করি হাফেজ আলী আকবরের কাছ থেকে ২১/০৩/২০০১ সালে সাফ কবলা দলিল নং—৩৭৯২। মুঃ বোরহান উদ্দিন তফসিল বর্ণিত সম্পত্তি মালিক দখলকার হইয়া নামজারী জমা ভাগ করিয়া সরকারের খাজনাদি পরিশোধ করিয়া ঢাকা সিটি কর্পোরেশনে নিজ নামে হোল্ডিং ট্যাক্স, বিদ্যুৎ, পানি বিলসহ যাবতীয় বিল পরিশোধ করিয়া টিনের ঘর চারদিক ওয়াল নির্মাণ করিয়া বসবাস করিয়া আসিতেছি।

মহানগর জরিপ খতিয়ান নং—১৬১৭, দাগ নং—৩৩৮৪৯ জমির পরিমাণ ০.৫৫৬ অযুতাংশ "৩" "১" /"৪" সোয়া তিন কাঠা। তিনি আরো বলেন, ২০১২ সালে রাজউক কতৃর্ক ৬ তলা ভবনের প্লান পাস গত ৩০/১১/২০২০ সালে ৬ তলা ভবনের নির্মাণ কাজ করার জন্য সকল প্রস্তুতি তৈরী করার পর হঠাৎ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার সহযোগিতায় সন্ত্রাসী ভূমিদস্যু (১) মোঃ নাজিম উদ্দিন ভূঁইয়া (২) রিয়াজুল করিম (৩) মোঃ সাইফুল ইসলাম, পিতা— মৃতঃ আবু তাহের ভূঁইয়া, (৪) মোঃ মিলন, পিতা— অজ্ঞাত রা আসিয়া আমার কাছে ২ কোটি টাকা দাবি করে।

আমার বাড়ীর ম্যানেজার মোঃ মমিন, পিতা— মৃতঃ মকবুল হোসেন তাহার স্ত্রী হাসিনা বেগমসহ বসবাস করতেন। সন্ত্রাসীদের ২ কোটি টাকা দিতে অস্বীকার করলে গত ৩০/১১/২০২০ সালে রাত আনুমানিক ১ টার সময় আমার বাড়ীতে হামলা চালায়। ম্যানেজার মমিন আমাকে জানালে আমি ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে ক্যান্টনমেন্ট থাকা থেকে এস.আই আনোয়ার হোসেন আসলে সন্ত্রাসীরা চলে যায়। ঘটনার সত্যতা প্রমাণ পায়।

পুলিশ চলে গেলে পরের দিন আমি থানায় গেলে থানার কথায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করি। তার কয়েকদিন পর আমার ম্যানেজার মমিন ও তার স্ত্রীসহ তাদেরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। আমার দাবি নাজিম উদ্দিন ভূঁইয়া গংরা ম্যানেজার ও তার স্ত্রীকে গুম করেছে। আজ প্রায় ১০ মাস যাবত তাদেরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তারা জামিনে আসিয়া পুনরায় আমার বাড়িঘর ভাংচুর করে দখল করে নেয়।

ঐখানে আমি যাইতে পারছি না। থানা পুলিশ আমাকে কোন সহযোগিতা করতে আসছে না এবং গত ২৫/০২/২০২১ তারিখে আমি আমার বাড়ীতে গেলে সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিন ভূঁইয়া গংরা এসে আমাকে হত্যা করার জন্য হামলা করে। আমার আত্মীয় আসিয়া ঘটনা স্থল থেকে রক্তাক্ত ও অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এই ব্যাপারেও থানায় আরেকটি মামলা রুজু করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আবেদন সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিন ভূঁইয়া গংদেরকে আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করলে মানিকদী এলাকার সকল জনগণ উপকৃত হবে। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন মোঃ দুলাল মিয়া।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password