পোশাক কারখানার শ্রমিকরা তিন ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন

পোশাক কারখানার শ্রমিকরা তিন ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় রূপসী নামে একটি রফতানিমুখী পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বেতন-ভাতার দাবিতে তিন ঘণ্টা লিংক সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের পুলিশ লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করায় পিছু হটেন শ্রমিকরা।

এরপর থেকে সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। শ্রমিকরা জানান, ফতুল্লার লামাপাড়া এলাকায় অবস্থিত রূপসী গার্মেন্টে প্রায় চার হাজার শ্রমিক কাজ করেন। শ্রমিকদের মধ্যে কেউ তিন মাসের আবার কেউ দুই মাসের বেতন পাবেন। শ্রমিকদের দাবি, মালিক পক্ষ তাদের এক মাসের বেতন আটকালে সংসার চালাতে কষ্ট হয়।

এর মধ্যে মালিকপক্ষ কয়েক মাস যাবত বেতন ভাতা দেয় না। ফলে শ্রমিকদের নানা সমস্যায় পড়ে কারখানায় কাজ করতে হয়। বিষয়টি মালিক পক্ষকে বারবার জানিয়ে ব্যর্থ হয়ে বিক্ষোভ করতে শ্রমিকরা বাধ্য হন। গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি এমএ শাহিন বলেন, কারখানা কতৃর্পক্ষ প্রতি মাসেই শ্রমিকদের বেতন ভাতা নিয়ে গড়িমসি করেন।

এখন তিন মাসের বেতন বকেয়া পড়েছে। এ বেতন বৃহস্পতিবার দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মালিক পক্ষ না দিয়ে আবারো ৭ এপ্রিল বেতন ভাতা দেওয়ার ঘোষণা দেয়। এতে শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে সড়ক অবরোধ করেন। একপর্যায়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক-সার্কেল নাজমুল হাসান মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ৬ এপ্রিল বেতন ভাতা দেওয়ার ঘোষণা দেন।

এতে শ্রমিকরা না মেনে বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে লাঠিচার্জ ও টিআর সেল নিক্ষেপসহ বেশ কয় রাউন্ড গুলি ছুড়ে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেন পুলিশ। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, শিল্প পুলিশের সমন্নয়ে থানা পুলিশ বিক্ষোভরত শ্রমিকদের শান্ত করে মালিক পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

কিন্তু শ্রমিকরা তাতে রাজি না তাৎক্ষণিক বেতন-ভাতা দাবি করেন। বেতন ভাতা না পেলে সড়ক ছাড়বে না বলে জানান। এ সময় শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে দিপঙ্কর নামে একজন এএসআই আহত হয়েছেন। তাকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, যানজট আর জনদুর্ভোগের বিষয়টি চিন্তা করে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে কিছু টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। একই সঙ্গে শর্টগানের গুলিও ছোড়া হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password