শিবপুরে অসামাজিক কার্যকলাপের সময় এলাকাবাসীর হাতে প্রবাসীর স্ত্রী ধরা, অতঃপর

শিবপুরে অসামাজিক কার্যকলাপের সময় এলাকাবাসীর হাতে প্রবাসীর স্ত্রী ধরা, অতঃপর

 নরসিংদীর শিবপুরে অসামাজিক কার্যকলাপের সময় এলাকাবাসীর হাতে ধরা প্রবাসীর স্ত্রী লতিফা বেগম। ২৯ এপ্রিল (শুক্রবার) দিবাগত রাতে চক্রধা ইউনিয়নের দোপাথরে প্রবাসী স্বামী আসাদের বাড়িতে প্রেমিকের সাথে ধরা পড়ে স্ত্রী লতিফা বেগম। অভিযুক্ত লতিফা বেগম দোপাথরের শহীদুল্লাহ এর মেয়ে।

এসময় এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়লে লতিফা বেগম প্রবাসী স্বামী আসাদকে ডিবোর্স দিয়ে অসামাজিক কাজে ধরা পড়া প্রেমিক সুজনকে বিয়ে করবে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। এলাকাবাসী আরো জানান, এসময় স্থানীয় মেম্বার, কাজী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিতে স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর দিয়ে চলে যায়। ঘটনার কিছুদিন পড় হয়রানির উদ্দেশ্যে প্রবাসী স্বামী, আসাদের ছেলে রাজিব, সেলিমের ছেলে ফারুক ও কাজী নজরুলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে লতিফা বেগম।

প্রবাসী স্বামী আসাদের মা বলেন, প্রতিদিন রাতেই পরপুরুষ নিয়ে দোকানের ভিতরে গিয়ে সার্টার বন্ধ করে সময় কাটায়। আমি প্রায় সময়ই দেখি সুজন নামের ছেলেকে নিয়ে আসে। ওই ছেলের বাড়ি সিলেটে। এখানে থেকে সিএনজি চালায়।

অভিযুক্ত লতিফা বেগমের বক্তব্যে সাংবাদিককে বলেন, আমার স্বামী ২০ বছর যাবত বিদেশে। আমাকে দেখাশুনা করে না। বাড়ি ঘরের যেই অবস্থা এই ঘরে বউ থাকবো? এমন করমু না তো কি করমু। অসামাজিক কার্যকলাপের কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, এইরকম বাড়ি ঘরে খারাপ মহিলা ওই থাকবো।

স্থানীয় মেম্বার আব্দুল মালেক জানান, এলাকাবাসী লতিফা বেগমকে প্রেমিক সুজনের সাথে অসামাজিক কার্যকলাপের সময় আটক করে। পরে প্রেমিক সুজনকে বিয়ে করবে বলে জানায়। এলাকাবাসী ও আমার উপস্থিতিতে স্বইচ্ছায় স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর দিয়ে চলে যায়। এখন এই লতিফা বেগম হয়রানি করার চেষ্টা করছে।

মন্তব্যসমূহ (০)