রাজধানীতে দ্বিতীয় দিনের লকডাউন চলছে ঢিলেঢালা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সরকার ঘোষিত লকডাউনের দ্বিতীয় দিন আজ। প্রথম দিনের মতোই রাজধানীতে একরকম ঢিলেঢালাভাবেই চলছে লকডাউন। প্রধান সড়কগুলোতে বাস না থাকলেও মানুষের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। বিভিন্ন কাজে বের হওয়া এই মানুষদের যাতায়াতের প্রধান বাহন হয়ে উঠেছে রিকশা, মোটরসাইকেল কিংবা সিএনজি। তবে ব্যতিক্রম দৃশ্যও দেখা গেছে বেশ কয়েকটি এলাকায়।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে রাজধানীর প্রধান সড়কগুলোতে চোখে পড়েনি বাস। এদিকে গণপরিবহন সংকটে ভোগান্তির সম্মুখীন হয়েছেন বিভিন্ন কাজে বের হওয়া মানুষ। রিকশা, সিএনজি, মোটরসাইকেল কিংবা ব্যক্তিগত গাড়িই তাদের শেষ ভরসা। রাজধানীর টেকনিক্যাল, কল্যানপুর, শ্যামলী, আগারগাঁও, শেওড়াপাড়া, ফার্মগেট, রাজাবাজার, কাওরানবাজার, মতিঝিল, কাকরাইল, পল্টন, শাহবাগ এলাকার সড়ক ঘুরে দেখা যায়, রাস্তার পাশেই পরিবহনের জন্য অপেক্ষা করছে অফিসগামী মানুষ। সড়কে বাস না থাকলেও অন্যান্য যান চলাচল ছিল চোখে পড়ার মতো।

এর মধ্যে ব্যক্তিগত গাড়ি, রিকশা, সিএনজি, মোটরসাইকেলের উপস্থিতি অন্যান্য দিনের মতো। ফলে রাজধানীর কোনো কোনো জায়গায় স্বাভাবিক সময়ের মতোই ট্রাফিক সামাল দিতে হচ্ছে পুলিশ সদস্যদের। এমনকি কিছু সিগনালে ছোটখাটো যানজটও দেখা গেছে। এমন চিত্র চোখে পড়েছে রাজধানীর বিজয় স্মরণী, চন্দ্রিমা উদ্যান, কাওরানবাজারে।

রাজধানীর পল্টন মোড়ে এক রিকশাচালক জানান, লকডাউন তো চলছে। কিন্তু বের না হলে আমাদের চলবে কিভাবে? পরিবার নিয়ে বাঁচতে তো হবে।

তবে ব্যতিক্রম দৃশ্য চোখে পড়েছে রাজধানীর যাত্রাবাড়ি এলাকায়। প্রধান সড়কে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সামনেই চলছে হিউম্যান হলার বা লেগুনা। গন্তব্যে পৌঁছানোর তাগিদে গাদাগাদি করে এই বাহন ব্যবহার করছে এখানকার মানুষ। স্বাস্থ্যবিধি না মানা, বাড়তি ভাড়া, পরিবহন সংকট, সবকিছু মিলিয়ে একদমই লকডাউন মানতে নারাজ মানুষ।

লেগুনায় বসে থাকা এক যাত্রী জানান, আমাদের আর কি করার আছে? যেতে তো হবেই। এদিকে একই এলাকায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় অপেক্ষমান এক নারী জানান, আমার গলার চিকিৎসা চলছে। টিউমারের অপারেশন। আমরা কিভাবে যাবো? কি করার আছে আমাদের?

যাত্রাবাড়ি এলাকায় চলাচল করা এক লেগুনার চালক জানান, গাড়ি না চালালে কিভাবে চলবো? খাবো কি? বের না হলে তো পেট চলে না। তাই বের হয়েছি। এদিকে লকডাউন হলেও যানজট দেখা গেছে রাজধানীর কয়েকটি এলাকায়। কাওরানবাজার সিগন্যাল, বিজয়স্মরণী, ধানমন্ডির চেহারা প্রতিদিনের মতোই। বাস না থাকলেও এই পয়েন্টগুলোতে রয়েছে যানবাহনের চাপ।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন