ইসরায়েলি বিমান হামলায় এক পরিবারের সবাই নিহত বেঁচে গেলো ৫ মাসের শিশু

ইসরায়েল আর ফিলিস্তিনের মাঝে ফের শুরু হয়েছে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। আধুনিক সব অস্ত্রে সজ্জিত ইসরায়েলি সেনাদের হামলায় প্রতিদিন শত শত ফিলিস্তিনি মারা যাচ্ছে। গাজার পশ্চিমে শরণার্থীশিবিরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় এক পরিবারের ১০ সদস্য নিহত হয়েছেন। শুধু বেঁচে গেছে ওই পরিবারের পাঁচ মাস বয়সী এক শিশু! তবে শিশুটি গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

গত সোমবার সহিংসতা শুরুর পর থেকে এপর্যন্ত গাজায় কমপক্ষে ১৪৯ জন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে রয়েছে ৪১ শিশু। রয়টার্স জানিয়েছে, স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার গাজার পশ্চিমে শরণার্থীশিবিরে ইসরায়েলি বিমান হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া শিশুটির নাম ওমর আল হাদিদি। হামলায় শিশুটির মা, চার ভাইবোন ও স্বজনেরা নিহত হন। ওমরের চিকিৎসক বলেন, 'পাঁচ মাস বয়সী শিশুটির অবস্থা ভালো না। তার পায়ের হাড় ভেঙে গেছে। সারা শরীরে আঘাতের দাগ'।

এদিকে শিশুটির বাবা মোহাম্মদ আল হাদিদি ভাগ্যবান; কারণ হামলার সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না। হামলার বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেছেন, 'ওই শরণার্থীশিবির থেকে কোনো রকেট হামলা চালানো হয়নি। সেখানে শুধু শিশু ও নারী ছিল। কোন অপরাধে তাদের এভাবে মেরে ফেলা হলো?' শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র, জাতিসংঘ এবং মিসর এই যুদ্ধ থামানোর চেষ্টা করছে। তবে উভয় পক্ষই যুদ্ধ বন্ধে এখনো রাজি হয়নি। আজ ভোরে গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় কমপক্ষে চারজন নিহত হন।

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password