আন্তর্জাতিক

সংঘর্ষের পর গাড়ি গড়াচ্ছিল, অক্ষত রাণী এলিজাবেথের স্বামী

ব্রিটিশ রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী এবং ডিউক অব এডিনবার্গ প্রিন্স ফিলিপকে বহনকারী গাড়িটি আরেকটি গাড়ির সঙ্গে সংঘর্ষের পর গড়িয়ে রাস্তার এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে গিয়ে পড়লেও প্রাণে বেঁচে গেছেন তিনি। অপর গাড়ির চালক এবং এক যাত্রী আহত হলেও অক্ষত আছে নয় মাস বয়সের এক শিশু।স্থানীয় সময় বিকেল তিনটার দিকে স্যান্ড্রিংহামের কাছে এ১৪৯ সড়কে ফিলিপের ল্যান্ড রোভারের সঙ্গে একটি কিয়া গাড়ির সংঘর্ষ হয়। এসময় ল্যান্ড রোভারের চালকের আসনে ৯৭ বছরের ফিলিপ এবং কিয়া গাড়িটির চালকের আসনে ২৮ বছরের এক নারী ছিলেন বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম বিবিসি।প্রত্যক্ষদর্শী রয় ওয়ার্ন বিবিসি রেডিও ফোরের টুডে প্রোগ্রামকে বলেন, সংঘর্ষের পর আমি ল্যান্ড রোভার গাড়িটি রাস্তার এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে গড়িয়ে যেতে দেখি। উদ্ধারের পর গাড়িটিতে থাকা বৃদ্ধ কাঁপছিলেন। কিন্তু উঠে দাঁড়িয়েই অন্যদের কথা জানতে চাইলে আমি কিয়া গাড়িটির কাছে যাই।তিনি বলেন, কিয়া গাড়িটির পেছনে একটি শিশু ছিল। আমি ও পাশে থাকা আরেকজন মিলে শিশুটিকে বের করি। এরপর আমি ল্যান্ড রোভারের কাছে এসে বুঝতে পারি উদ্ধারকৃত ব্যক্তি হলেন ডিউক অব এডিনবার্গ। উদ্ধারের পর কিয়া গাড়ির দুই নারীকে কুইন এলিজাবেথ হসপিটালে নেয়া হয়।তিনি আরও বলেন, চালকের আসনে থাকা নারীর হাঁটু কেটে গেছে এবং যাত্রীর আসনে থাকা ৪৫ বছর বয়সী নারীর হাতের কবজি ভেঙে গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদেরকে ছেড়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। আর পূর্বসতর্কতা হিসেবে একজন ডাক্তারের কাছে নেয়া হয় ডিউককে।নোর্ফোল্ক পুলিশ জানায়, দুর্ঘটনার শিকার সবারই শ্বাস পরীক্ষা করা হয়। এক্ষেত্রেও তেমনটি করা হয়েছে। দুর্ঘটনার বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।ওয়ার্ন যুক্তরাজ্যের আরেকটি গণমাধ্যম দ্য সানকে জানান, পুলিশের সঙ্গে কথোপকথনের সময় তিনি ডিউক ফিলিপকে বলতে শুনেছেন যে সূর্যের আলো হঠাৎ তার চোখে পড়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

Close