বরিশাল

থমথমে অবস্থা, সভা-সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা, মামলা দায়ের, ৪ মুসুল্লির দাফন রাতেই সম্পন্ন

ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশ সঙ্গে মুসুল্লিদের দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় ৪জন নিহতের ঘটনায় সেখানে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ভোলা সদর ও ঘটনাস্থল বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ব্যাপক সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োগ করা হয়েছে।

প্রিয় পাঠক আমাদের পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন

গতকাল ৪জন নিহতের ঘটনায় প্রতিবাদে আজ সোমবার সকাল ১১টার ভোলা সরকারী বালক স্কুলের মাঠে ’সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদ’র ব্যানারে ডাকা হয়েছে। কিন্তু পুলিশ সেই সমাবেশের অনুমতি দেয়নি বলে জনান ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটির সাধারন সম্পাদক মাওলানা তাজ উদ্দিন ফারুকী।

এদিকে ভোলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সব ধরনের মিছিল, সভা ও সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে জেলা প্রশাসন মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক। সোমবার (২১ অক্টোবর) সকাল থেকে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

তবে ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটির সাধারন সম্পাদক মাওলানা তাজ উদ্দিন ফারুকী বলেন, তারা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন বা সংবাদ সম্মেলন করার চেষ্টা করবেন।

এ ব্যাপারে ভোলা সদর মডেল থানার ওসি মো. এনায়েত হোসেন বলেন, কোন প্রকার সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছেন যেকোন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য।

এদিকে গতকাল রবিবার দুপুরে নিহত ৪জনের দাফন রাতেই সম্পন্ন হয়েছে। নিহতরা হলেন বোরহানউদ্দিন পৌর ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মাহাফুজুর রহমান পাটওয়ারী (৪২) বোরহানউদ্দিন উপজেলার মহিউদ্দিন পাটওয়ারীর ছেলে মাহাবুব পাটওয়ারী (১৪), মনপুরা হাজির হাট এলাকার বাসিন্দা মিজানুর রহমান(৪০) ও বোরহানউদ্দিনেন শাহীন।

এদের মধ্যে মাহাফুজুর রহমান পাটওয়ারীর জানাযা গতকাল রাত সাড়ে ৯টার বোরহানউদ্দিন বাজারর উত্তর মাথায় বাসষ্টানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্য ৩জনের জানাযা নিজ নিজ গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়।পরে তাদের দাফন করা হয় বলে স্থানীয়রা ও পুলিশ জানিয়েছে।

আজ সোমবার সকাল থেকে ভোলা সদর ও বোরহানউদ্দিনের মোড়ে মোড়ে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন(র‌্যাব), বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), কোস্ট গার্ড ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন।

পুলিশের বক্তব্য অনুযায়ী, গত ১৮ অক্টোবর ভোলার বোরহানউদ্দিনে বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামের হিন্দু এক যুবকের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে ম্যাসেঞ্জাওে আল্লাহ ও নবীজির নামে অবমাননাকর বক্তব্য ছড়িয়ে দেওয়া হয়। এর পর বিষয়টি তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঐ যুবককে পুলিশ আটক করে তাদের হেফাজতে রাখে। হিন্দু যুবকের ফেসবুক আইডি হ্যাক করার সঙ্গে জড়িতদের পুলিশ আটক করেছে বলে জানান।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল রবিবার সকালে ’তৌহিদী জনতা’র ব্যানারে মুসুল্লিারা বিপ্লবের ফাসিঁর দাবিতে বোরহানউদ্দিন ঈদগাহ মাদ্রাসার মাঠে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে। পুলিশ এই সমাবেশের অনুমতি দেয়নি এবং মুসুল্লিদের সমাবেশ না করতে বলেন। তারপরও সেখানে হাজার হাজার মুসুল্লিারা সমাবেত হন। এবং সেখানে কিছু সংখ্যক উক্তেজিত জনতা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ও পাথর ছুড়ে মারে। এসময় এক পুলিশ সদস্য আহত হয়।

পুলিশ জানায়, একপর্যায়ে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ও সরকারী জানমাল রক্ষার্থে জনতাকে নিবৃত্ত করতে প্রথমে টিয়ার গ্যাসের শেল নিক্ষেপ এবং পরে শর্টগান চালায়। পরে পরিস্থিতির ভহাবহতায় ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে গুলি চালাতে বাধ্য হয় পুলিশ। এসময় মাহাফুজুর রহমান পাটওয়ারী, মাহাবুব,মিজানুর রহমান ও শাহীন নামের ৪মুসুল্লি নিহত হয়। এছাড়া পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে কয়েক জনকে আটক করেছে।

পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে রবিবার রাতে বোরহানউদ্দিন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবিদ হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ৫ হাজার জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বোরহানউদ্দিন থানার ওসি মু.এনামুল হক জানান, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় এ মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

ভোলার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) শেখ সাব্বির হোসেন বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় ৩০ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জন চিকিৎসাধীন। পুলিশ এখন পর্যন্ত ১৫ জনকে আটক করেছে।

জানায়ায়, গতকাল রবিবার ঘোষিত ভোলায় সরকারী স্কুল মাঠে আজ সোমবার সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের ব্যানারের ৬দফার দাবীতে প্রতিবাদ সমাবেশটি ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে চলছে।

ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, শহরের পরিবেশ স্বাভাবিক হচ্ছে। তবে বোরহানউদ্দিনে এখনো থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। সেখানে পুলিশ,বিজেবি ও কোস্টগার্ড দায়িত্ব পালন করছে।

প্রিয় পাঠক আপনার মতামত জানান

এ বিভাগের আরো খবর

Close
Close