ক্ষুধার কারণে এন্টার্কটিকায় মারা যাচ্ছে হাজারো পেঙ্গুইনের বাচ্চা

এন্টার্কটিকায় মারা যাচ্ছে হাজার হাজার পেঙ্গুইন বাচ্চা। সমুদ্রে বরফের অত্যাধিক পুরুত্বের কারণে মায়েদের খাদ্য সংগ্রহ সংকটে এসব বাচ্চারা মারা যাচ্ছে।

বিজ্ঞানী কাউডার বলেন, পরিবেশগতগত পরিবর্তনের কারণে খাবার সংগ্রহের সময়ের তারতম্য ঘটে যাওয়ায় এই বিপর্যয় ঘটছে।
পরিবেশবিদরা একে পেঙ্গুইন প্রজনন প্রক্রিয়ায় বিপযর্য় বলে অভিহিত করেছেন। ফ্রান্সের এক বিজ্ঞানী ইয়ান রোপার্ট কাউডার ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফাউন্ডেশনের বিশ্বব্যাপী প্রকৃতি রক্ষাকারী অনুদান সংস্থার সহযোগিতায় পূর্ব এন্টার্কটিকা এলাকায় ২০১০ সাল থেকে ১৮ হাজার জোড়া আ্যাডেলি পেঙ্গুইনের একটি দলের ওপর গবেষণা করে এ তথ্য জানিয়েছেন।

অত্যাধিক পুরু বরফের আস্তরণের কারণে মা পেঙ্গুইনকে খাদ্য সংগ্রহর জন্য দুরে চলে যেতে হয়, আর এদিকে ক্ষুধায় খাবারের অপেক্ষা করতে করতে বাচ্চাদের মৃত্যু ঘটে।

তিনি চলতি বছরের প্রথমদিকে দেখতে পান যে ১৮ হাজার জোড়ার পেঙ্গুইনের প্রজননকৃত বাচ্চাদের মধ্যে মাত্র দুটি বাচ্চা বেঁচে থাকতে সক্ষম হয়েছে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ‘ঝিনুকদহ ভাষা পরিষদের’ ঘোষিত তিন দিনের কর্মসূচী সফল ভাবে পালিত

» শুভ জন্মদিন- সাদিদুল ইসলাম (সাদিদ)

» কে এই সুন্দরী পুলিশ অফিসার

» চাকরি শুধু নগ্ন হয়ে বসে থাকা, বেতন জানলে চমকে যাবেন

» জামিনে এনে আসামিকে বিয়ে, আইনজীবীকেই হত্যা!

» চসিকের গৃহকর আপিল শুনানি ও অ্যাসেসমেন্ট স্থগিত

» ঝিনাইদহে ‌ঝিনুকদহ ভাষা পরিষদ-র অালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» পৃথিবীর বাইরে প্রাণের সন্ধান !

» গ্রাম থেকে আসা সেই মানশি এখন কোটি কোটি তরুণীর আদর্শ!

» সিএনজি অটোরিকশাও মিলবে অ্যাপে, ঘোষণা শিগগিরই

» মাগুরায় চলছে অবৈধ সিমের বাজার

» আয়ুর্বেদিক উপাদান হিসেবে নিম পাতার ব্যবহার

» চাঁদে ৫০ কিলোমিটার সুড়ঙ্গের হদিস মিলেছে

» আইফোন এক্সের ভেতরে যা রয়েছে ভিডিও সহ দেখুন

» নেকলেস পরার সঠিক কায়দা-কানুন

Design & Devaloped BY MyhostIT

,

ক্ষুধার কারণে এন্টার্কটিকায় মারা যাচ্ছে হাজারো পেঙ্গুইনের বাচ্চা

এন্টার্কটিকায় মারা যাচ্ছে হাজার হাজার পেঙ্গুইন বাচ্চা। সমুদ্রে বরফের অত্যাধিক পুরুত্বের কারণে মায়েদের খাদ্য সংগ্রহ সংকটে এসব বাচ্চারা মারা যাচ্ছে।

বিজ্ঞানী কাউডার বলেন, পরিবেশগতগত পরিবর্তনের কারণে খাবার সংগ্রহের সময়ের তারতম্য ঘটে যাওয়ায় এই বিপর্যয় ঘটছে।
পরিবেশবিদরা একে পেঙ্গুইন প্রজনন প্রক্রিয়ায় বিপযর্য় বলে অভিহিত করেছেন। ফ্রান্সের এক বিজ্ঞানী ইয়ান রোপার্ট কাউডার ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফাউন্ডেশনের বিশ্বব্যাপী প্রকৃতি রক্ষাকারী অনুদান সংস্থার সহযোগিতায় পূর্ব এন্টার্কটিকা এলাকায় ২০১০ সাল থেকে ১৮ হাজার জোড়া আ্যাডেলি পেঙ্গুইনের একটি দলের ওপর গবেষণা করে এ তথ্য জানিয়েছেন।

অত্যাধিক পুরু বরফের আস্তরণের কারণে মা পেঙ্গুইনকে খাদ্য সংগ্রহর জন্য দুরে চলে যেতে হয়, আর এদিকে ক্ষুধায় খাবারের অপেক্ষা করতে করতে বাচ্চাদের মৃত্যু ঘটে।

তিনি চলতি বছরের প্রথমদিকে দেখতে পান যে ১৮ হাজার জোড়ার পেঙ্গুইনের প্রজননকৃত বাচ্চাদের মধ্যে মাত্র দুটি বাচ্চা বেঁচে থাকতে সক্ষম হয়েছে।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



   

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিতঃ ২০১৭ । বিডি টাইপ পত্রিকা আগামী প্রজন্মের মিডিয়া

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি