শিরোনাম
হোম / আন্তর্জাতিক / ভারত / ধর্ষক ধর্মগুরুর সাজা ঘোষণায় বাধা পেলেই গুলি

ধর্ষক ধর্মগুরুর সাজা ঘোষণায় বাধা পেলেই গুলি

ধর্ষণের অপরাধে গ্রেপ্তারকৃত ভারতীয় ধর্মগুরু রাম রহিম সিংয়ের বিচারের সাজা ঘোষণায় বাধা আসলেই গুলি করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ।
আজ সোমবার রাম রহিমের ধর্ষণের রায়ের সাজা শোনানো হবে। এ নিয়ে হরিয়ানা রাজ্যের রোহতক পুলিশের ডেপুটি কমিশনার অতুল কুমার জানান, কেউ যদি আইন ভেঙে বিচারকার্যকে বাধাগ্রস্ত করতে চায় সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তিকে প্রথমে সতর্ক করা হবে, আর তা মানা না হলে গুলি চালানো হবে।

তিনি বলেন, সাধারণ জনগণের এ নিয়ে আতঙ্কিত হবার কিছুই নেই। সবকিছু আমাদের নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে।
গেলো শুক্রবার ১৫ বছর আগে নিজের ২ নারী ভক্তকে ধর্ষণের অভিযোগে আদালতে দোষী সাব্যস্ত হন বিতর্কিত এ ধর্মগুরু। খবর ছড়িয়ে পড়লে তার ভক্তরা হরিয়ানা, পাঞ্জাব ও দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক সহিংসতা চালায়। এ সহিংসতায় ৩৫ জন নিহত হয় এবং এ পর্যন্ত প্রায় ৬০০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ধর্ষণের দায়ে পাঞ্জাবের ধর্মীয় গোষ্ঠী ‘ডেরা সাচ্চা সওদার’প্রধান রাম রহিম সিংয়ের কী সাজা হবে আদালত সেই সিদ্ধান্ত শোনাবেন বলে সোমবারের দিনটি ঠিক করা হয়।
রোহতকের সুনারিয়া জেলে তার কয়েদি নম্বর ১৯৯৭। তবে কোনো ভিআইপি সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন না তিনি। ধর্ষণের অপরাধী রাম রহিম সিংকে আর পাঁচটা কয়েদির মতোই রাখা হয়েছে।

জেল সূত্রে জানা গেছে, জেলের নিয়ম মেনে মেঝেতেই বিছানা পেতে শুতে হচ্ছে ডেরা সাচ্চা সওদা প্রধানকে। বাইরে তার ভক্তকুলের সংখ্যা যাই হোক না কেন জেলের ভেতরে তিনি একজন আসামি ছাড়া অন্যকিছু নন। তাই তাকে কোনো শীততাপ নিয়ন্ত্রিত সেলও দেয়া হয়নি।
সুনারিয়া জেল সূত্রে জানা গেছে, রাম রহিমের সেলের সামনে ৪ জন প্রহরী মোতায়েন করা হয়েছে।

সেলের ভেতরে তার সঙ্গে রয়েছে আরো দুই বন্দি। প্রথম রাতটা অবশ্য তিনি না ঘুমিয়েই কাটিয়েছেন। হরিয়ানার ডিজিপি (কারা) কেপি সিং জানিয়েছেন, শুক্রবার রাতে রাম রহিম সিংকে জেলের রান্নাঘরে তৈরি ডাল ও রুটি দেয়া হয়েছিল। তবে এক গ্লাস দুধ ছাড়া আর কিছু মুখে তোলেননি তিনি।

হরিয়ানা সরকার অবশ্য আগেই ঘোষণা করে দিয়েছিল, রাম রহিম সিংকে কোনো বিশেষ সুবিধে দেয়া হবে না।
সাজা ঘোষণার পর নতুন করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠার আশঙ্কায় দুর্ভেদ্য দুর্গে পরিণত করা হয়েছে সুনারিয়া জেলকে। ২ কিলোমিটার বৃত্তাকারে ঘিরে ফেলা হয়েছে সুনারিয়া জেলকে। মোতায়েন করা হয়েছে সেনা, আধাসামরিক বাহিনী ও প্রচুর পুলিশ।

Facebook Comments

About Kalam Khan

www.myhostit.com