শিরোনাম
হোম / অপরাধ / গুলিতে ৪ জন নিহতের ঘটনায় ৪ পুলিশ চাকুরিচ্যুত

গুলিতে ৪ জন নিহতের ঘটনায় ৪ পুলিশ চাকুরিচ্যুত

ঢাকা, ০১ আগস্ট, এবিনিউজ : টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ২০১৫ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হওয়ার ঘটনায় পুলিশের দুই এসআই ও দুই কনস্টেবলকে চাকরিচ্যুতি করা হয়েছে। এছাড়াও আরও চারজনের ইনক্রিমেন্ট স্থগিত করা হয়েছে। বিভাগীয় মামলায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আজ মঙ্গলবার এই চাকরিচ্যুতির আদেশ দেয়া হয়।

চাকরিচ্যুত পুলিশ সদস্যরা হলেন- ঘাটাইল থানার সাবেক এসআই (বর্তমানে টাঙ্গাইলের বাসাইল থানায় কর্মরত) মনসুব আহমেদ ও কালিহাতী থানার এসআই (বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেলায় কর্মরত) সলেম উদ্দিন, বর্তমানে রাজবাড়ি জেলায় কর্মরত কনস্টেবল জিয়াউল হক ও আমিনুল ইসলাম।

এছাড়াও এসআই ওমর ফারুকের (বর্তমানে নাগরপুর থানায় কর্মরত) পাঁচ বছরের জন্য, এসআই আবুল বাশারকে (বর্তমানে নেত্রকোনা) তিন বছরের জন্য এবং কনস্টেবল মাহাতাব উদ্দিনকে (বর্তমানে টাঙ্গাইল কোর্টে কর্মরত) ও কনস্টেবল তমাল চন্দ্র দের ইনক্রিমেন্ট দুই বছরের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার মো. মাহবুব আলম জানান, কালিহাতীতে পুলিশের গুলি বর্ষণের ঘটনায় বিভাগীয় মামলা হয়। পরে তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় চারজনকে চাকুরিচ্যুত এবং চারজনের বিরুদ্ধে ইনক্রিমেন্ট স্থগিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর কালিহাতী উপজেলার সাতুটিয়া গ্রামে রফিকুল ইসলাম রোমা ও তার ভগ্নিপতিসহ কয়েকজন ঘাটাইল থানার আলামিন ও তার মাকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ১৮ সেপ্টেম্বর ঘাটাইলের হামিদপুর বাজারে ও কালিহাতী সদরে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

মিছিলে পুলিশ গুলি চালালে ঘাটাইল উপজেলার ফারুক হোসেন (৩২), কালিয়া গ্রামের শামীম (৩৫), কালিহাতী উপজেলা সদরের শ্যামল দাস (১৫) ও বেতডোমা গ্রামের রুবেল হোসেন (২০) নিহত হন। এছাড়া গুলিবিদ্ধ হন আরও সাতজন।

Facebook Comments

About Kalam Khan

www.myhostit.com