শিরোনাম
হোম / বাংলাদেশ / নরসিংদীর ঘোড়শালে কিশোরীকে গলাকেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন, ঘাতক প্রেমিক আটক

নরসিংদীর ঘোড়শালে কিশোরীকে গলাকেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন, ঘাতক প্রেমিক আটক

অবশেষে ঘোড়শালে কিশোরী মনি বিশ্বাসকে গলা কেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পলাশ থানা পুলিশ। হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে বুধবার দুপুরে আবুল কাশেম নামে এক জনকে আটক করে থানা পুলিশ। আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে বন্ধুদের নিয়ে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে গলা কেটে হত্যা করার কথা জানায় আবুল কাশেম। বিষয়টি নিশ্চিত করেন, ঘোড়শাল ফাঁড়ির ইনর্চাজ (পুলিশ-পরিদর্শক) মোঃ গোলাম মোস্তফা। আটককৃত আবুল কাশেম ঘোড়াশাল উত্তর চরপাড়া এলাকার শেখ মোঃ ইমান আলীর ছেলে। কাশেম ওমেরা পেট্রোলিয়াম কোম্পানির পলাশ কারখানায় শ্রমিকের কাজ করতেন।

পুুলিশ জানায়, আবুল কাশেম দীর্ঘদিন যাবত হিন্দু পরিচয়ে মনি বিশ্বাসসের সাথে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। হত্যার দিন রাত সাড়ে বারোটার সময় মনি বিশ্বাসকে দেখা করার কথা বলে ঘর থেকে বের করে বাড়ির পাশের একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে উৎপেতে থাকা আবুল কাশেমের আরো তিন বন্ধু সহ মনি বিশ্বাসকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় মনি বিশ্বাস চিৎকার দিলে কাশেম তার মুখ চেপে ধরে। এতে মনি বিশ্বাস অচেতন হয়ে পড়ে। পরে লোক জানাজানির ভয়ে তাকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে।

পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর আবুল কাশেমকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি ও নিহত মনি বিশ্বাসকে মোবইল ফোনটি উদ্ধার করা হয়েছে। এর সাথে জড়িত বাকী আসামীদের আটকের অভিযান চলছে।

উল্লেখ যে, গত ২১ আগস্ট সোমবার সকালে পলাশ থানা পুলিশ ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পাইকসা গ্রামের নিশি কান্ত বিশ্বাসসের মেয়ে মনি বিশ্বাসসের গলাকাটা লাশ বাড়ির পাশের একটি সবজির বাগানের নিচ থেকে উদ্ধার করে।

Facebook Comments

About Kalam Khan

www.myhostit.com