হেমন্তের পোশাক ‘রঙ বাংলাদেশে’

এম.আর.বি :

শরৎ শেষ। শুরু হেমন্তের। ক্রমেই পদধ্বনি শোনাবে শীত। রাতে এখনই মিলছে হিমের পরশ। আর শিশির পতনের শব্দ। নতুন করে ওয়্যারড্রোব সাজানোর পালা। প্রকৃতির পটবদলের এই সময়টা উপভোগ করতে চায় বাঙালি আহারে আর বাহারি পোশাকে।

দেশের অন্যতম শীর্ষ ফ্যাশন হাউজ ‘রঙ বাংলাদেশ’ নিয়ে এসেছে হেমন্তে নতুন পোশাকের বিশেষ কালেকশন। হরেক মোটিফে উজ্জ্বল পোশাকের জমিন নানা শেডে এই সময়ের সৌন্দর্যকে তুলে ধরেছেন ডিজাইনাররা।

রঙ বাংলাদেশের হেমন্তের পোশাক সম্ভারে বড়দের জন্য রয়েছে শাড়ি, থ্রি-পিস, লং স্কার্ট-টপস, সিঙ্গেল কামিজ, শর্ট ও লং পাঞ্জাবি, উত্তরীয়, ধুতি, শার্ট, টি-শার্ট ও ফতুয়া। আর শিশু কিশোরদের জন্য রয়েছে  ফ্রক, কামিজ থ্রিপিস, শার্ট, টি-শার্ট।

এই সময়ের আবহাওয়ায় শীতের আভাস থাকলেও এখনো কমেনি গরমের প্রকোপ। বাতাসে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণে আর্দ্রতা। এই বিষয়কে গুরুত্ব দিয়েই সাজানো হয়েছে হেমন্তের পোশাক। যেখানে সুতি কাপড়কে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি আছে নানা ধরনের সিল্ক ও এন্ডি।

হেমন্তের পোশাকে নকশা ফুটিয়ে তোলার মাধ্যমে হিসেবে বিভিন্ন ধরনের ভ্যালু অ্যাডেড মিডিয়ার ব্যবহার করা হয়েছে। নানা ধরনের প্রিন্টের ব্যবহার এই কালেকশনের মূল বৈশিষ্ট্য। নকশার চাহিদা অনুযায়ী কারচুপি, মেশিন ও হ্যান্ড এম্বয়ডারির পাশাপাশি তাই ব্যবহার করা হয়েছে ব্লক ও স্ক্রিন প্রিন্ট।

 

রঙ বাংলাদেশ-এর সুতি শাড়ি ৮৫০-৪,০০০ টাকা, হাফ সিল্ক ২,২৫০-৮,৫০০ টাকা, মসলিন ১০,৫০০-২০,০০০ টাকায় কেনা যাবে। সালোয়ার-কামিজ ২,০০০-৪৫০০ টাকা, সিঙ্গল কামিজ ৮৫০-৩,০০০ টাকা, স্কার্ট-টপস ১,২০০-২,৫০০ টাকা, পাঞ্জাবি ৮৫০-৪,০০০ টাকা, টি-শার্ট ৩৫০-৫০০ টাকা, পলো শার্ট ৬৫০-১,২০০ টাকা, শার্ট ৬৫০-১,৮০০ টাকা। এছাড়া ফতুয়া ৭৫০-১,২৫০ টাকা, উত্তরীয় ৩৫০-৫০০ টাকা, ধুতি ৬৫০-১,০৫০ টাকা, ব্লাউজ পিস ৩০০-৫০০ টাকা, আনস্টিচড  ১,৫০০-৪,০০০ টাকা, অলংকার সামগ্রী ৫০-২,০০০ টাকায় পাওয়া যাবে।

শিশু কিশোরদের পোশাকের ক্ষেত্রে পাঞ্জাবি ৬০০-৮৫০ টাকা, ফ্রক ৬০০-১,০৫০ টাকা, শার্ট ৫০০-৭০০ টাকা, সিঙ্গল কামিজ ৬০০-১,০৫০ টাকা, শাড়ি ৯৫০-১,১৫০ টাকায় পাওয়া যাবে। এছাড়াও পাওয়া যাবে ঘর সাজানোর জন্য নানা সামগ্রী। পোশাক ও গয়না রঙ বাংলাদেশ-এর সবগুলো শাখা ছাড়াও, ঘরে বসে অনলাইনেও (www.rang-bd.com) কেনার সুযোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে রয়েছে ক্যাশ অন ডেলিভারির সুবিধা। এছাড়া প্রিয়জনকে উপহার দেয়ার জন্য রয়েছে গিফট ভাউচার, যার মাধ্যমে প্রিয়জন নিজের পছন্দ মতো কেনাটাকা করতে পারবে।

Loading...