হারাম মাসে যুদ্ধের চাইতেও কোন কাজগুলি আল্লাহর কাছে বেশি অপছন্দনীয় ?

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

আল্লাহপাক ৪টি মাসে যুদ্ধ করাকে নিরুৎসাহিত করেছে (যিলকাদ, যিলহজ্জ, মুহাররম ও সাবান )। এই চার মাসে যুদ্ধ করা অত্যন্ত খারাপ কাজ বলে তিনি বিবেচনা করেন ৷ তবে আল্লাহ তা’য়ালা এই চার মাসে যুদ্ধ করা যতটুকু খারাপ বলে বিবেচনা করেন তার চেয়ে গুরুতর অপরাধ বলে মনে করেন নিম্নের কাজগুলি-
১. আল্লাহর পথ থেকে লোকদেরকে বিরত রাখা অর্থাৎ আল্লাহর পথে যারা চলতে চাই, সমাজ ব্যবস্থাটা যারা আল্লাহর পাথে চালাতে চাই তাদেরকে কষ্ট দেওয়া, নিপীড়ণ চালানো, ঘর থেকে বের করে দেওয়া কিংবা হত্যা করা এসব গুলোই হলো আল্লাহর পথ থেকে বিরত রাখা।
২. আল্লাহর সাথে কুফরী করা অর্থাৎ এক আল্লাহকে ছাড়া অন্য কারো দাসত্ব করা, অন্য কারো ইবাদত বন্দেগী করা, অন্য কারো হুকুমদাতা হিসেবে গ্রহন করা, অন্য কারো আইনদাতা হিসেবে মেনে নেয়া ও এক আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী বলে মেনে নেওয়াই হলো আল্লাহর সাথে কুফরী করা।
৩.মসজিদে হারাম বা মসজিদে আসার পথ আল্লাহ –বিশ্বাসীদের জন্য বন্ধ করে দেয়া অর্থাৎ শত্রুতার বশবর্তী হয়ে অথবা দ্বীন প্রতিষ্ঠার কাজ করার অপরাধে কোন মুমিনকে মসজিদে আসার পথ বন্ধ করে দেয়া।
৪. মনজিদে হারাম শরীফের অধিবাসীদেরকে সেখান থেকে বের করে দেয়া।
৫. সমাজের শন্তি, স্থিতি, ঐক্য বিনষ্ট করার লক্ষ্যে ফিত্‌না ফাসাদ সৃষ্টি করা।
এ কাজগুলো আল্লাহর কাছে হারাম মাসে যুদ্ধ করার চাইতেও গুরুতর অপরাধ ৷
এ সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালা বলেন-
يَسْأَلُونَكَ عَنِ الشَّهْرِ الْحَرَامِ قِتَالٍ فِيهِ ۖ قُلْ قِتَالٌ فِيهِ كَبِيرٌ ۖ وَصَدٌّ عَن سَبِيلِ اللَّهِ وَكُفْرٌ بِهِ وَالْمَسْجِدِ الْحَرَامِ وَإِخْرَاجُ أَهْلِهِ مِنْهُ أَكْبَرُ عِندَ اللَّهِ ۚ وَالْفِتْنَةُ أَكْبَرُ مِنَ الْقَتْلِ
হে নবী লোকেরা তোমাকে হারাম মাসে যুদ্ধ করার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করছে ৷ তাদেরকে বলে দাওঃ ঐ মাসে যুদ্ধ করা অত্যন্ত খারাপ কাজ ৷ কিন্তু আল্লাহর পথ থেকে লোকদেরকে বিরত রাখা , আল্লাহর সাথে কুফরী করা , মসজিদে হারামের পথ আল্লাহ –বিশ্বাসীদের জন্য বন্ধ করে দেয়া এবং হারাম শরীফের অধিবাসীদেরকে সেখান থেকে বের করে দেয়া আল্লাহর নিকট তার চাইতেও বেশী খারাপ কাজ ৷ আর ফিত্‌না হত্যাকান্ডের চাইতেও গুরুতর অপরাধ ৷বাকারা-217

ফেসবুক মন্তব্য
Share.