স্বামীকে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় প্রাণ গেল গৃহবধূর

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

স্বামীকে জুয়াখেলা ও মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে শিরিন আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
রবিবার দিবাগত রাত ২টার সময় উপজেলা মহিষমারী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিরিন আক্তার (২০) উপজেলার চাড়োল ইউনিয়নের সাবাজপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের কন্যা ও উপজেলার মহিষমারী গ্রামের আমজাদ আলীর স্ত্রী।

মেয়ের মা সামশুন নিহার ও তার বোন অভিযোগ করে বলেন, গত ১ বছর আগে মহিষমারী গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে আমজাদ আলীর আমার মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমজাদ আলী আমার মেয়েকে নিয়ে ঢাকায় চলে যায়।

সেখানে প্রতিনিয়ত মাদক সেবন ও জুয়া খেলতো গৃহবধুর স্বামী। এ কাজে বাধা দিলে সেখানে গৃহবধু শিরিনকে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করতো। গত ১ আগস্ট সে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ীতে এসেছে। রবিবার দিবাগত রাতে আমার মেয়ে শিরিনকে মেরে ফেলে গলায় ফাঁস লাগিয়ে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যান আমাদের মোবাইলে খবর দিলে আমরা রাতে এসে লাশ দেখতে পাই। লাশের গলায়, হাতে ও পিঠে আঘাতের চিহ্নও রয়েছে বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে এ ঘটনার পর গৃহবধূর স্বামী আমজাদ ও তার পরিবারের লোকজন বাড়ী ছেড়ে গা ঢাকা দিয়েছে।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি এবিএম সাজেদুল ইসলাম বলেন, থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে আমরা প্রয়োজনীয় আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফেসবুক মন্তব্য
Share.