খেলাধুলা

সেনাবাহিনীর পোশাক পরলেন পাকিস্তানের সরফরাজ

মানুষ ঘটনাটি মাত্র ভুলতে শুরু করেছে। কিন্তু সরফরাজ আহমেদ সে সুযোগ দিলেন না। নতুন এক ঘটনায় আবারও ক্রিকেটে ফিরিয়ে আনলেন রাজনীতি। আরও পরিষ্কার করে বললে ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ। পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর পোশাক পরে নতুন আলোচনার জন্ম দিয়েছেন ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সরফরাজ।

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪০ ভারতীয় জওয়ান নিহত হন। তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচে নীল রঙের টুপির বদলে সেনাদের টুপি পরেছিল ভারতীয় দল। ওই ম্যাচের পুরো ম্যাচ ফি সেনাদের কল্যাণ তহবিলে দান করে দল। ভারতীয় সেনাবাহিনীর সম্মানসূচক লেফটেন্যান্ট কর্নেল পদে থাকা মহেন্দ্র সিং ধোনি টসের আগে সতীর্থদের এই টুপি সরবরাহ করেছিলেন। কোহলি-ধোনিদের এই উদ্যোগ ভারতজুড়ে প্রশংসিত হয়েছিল। তবে বিষয়টি মানতে পারেনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। পিসিবি সভাপতি এহসান মানি দাবি করেন, ভারতীয় দল এই ধরনের টুপি পরায় আইসিসির আচরণবিধির লঙ্ঘন করা হয়েছে। পরে আইসিসির ব্যাখ্যায় সে আলোচনা থামে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই এখন আরব আমিরাতে সিরিজ খেলছে পাকিস্তান। তবে বিশ্বকাপের কথা চিন্তা করে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সদস্যকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে এ সিরিজ থেকে। অধিনায়ক সরফরাজও আছেন এঁদের মাঝে। সে সুযোগে পাকিস্তান সুপার লিগ জয় উদ্‌যাপন করেছেন সরফরাজ। পিএসএল জেতার আনন্দে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স দল একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। প্রথমবারের মতো পিএসএল জেতার আনন্দেই উৎসব করেছে দলটি। সেখানেই ঘটেছে এ ঘটনা।

গ্ল্যাডিয়েটর্সের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এ অনুষ্ঠানের ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। সরফরাজ নিজেও তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে অনুষ্ঠান নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের তালিকায় ছিলেন সেনাবাহিনীর দক্ষিণের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল আসিম বাহাও, বেলুচিস্তান মুখ্যমন্ত্রী জামাল খান। এঁদের সঙ্গী হয়ে একটি সেনা টুপি মাথায় দিয়ে সেনাবাহিনীর জ্যাকেটও গায়ে চড়িয়েছেন সরফরাজ।

এ বিভাগের আরো খবর

Close