রংপুর

লালমনিরহাটে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত এক যুবক!

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের সদর উপজেলায় জমির ধান কেটে নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আসাদুল হাবিব দুলু (৩০) নামের এক যুবক প্রথমে গুরুতর আহত ও পরে তার মৃত্যু হয়।
বুধবার (১৮ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্য হয়। এর আগে শনিবার (১৪ জুলাই) বিকেলে সদর উপজেলার পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের খন্ডিকার পাড়ায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। মৃত আসাদুল হাবিব দুলু ওই গ্রামের এমদাদুল হকের ছেলে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের এমদাদুল হকের ৫২ শতাংশ জমির ধান কেটে নিয়ে যায় তার ভাইপো মহুবর রহমান ও একরামুল হক। এ নিয়ে বৃদ্ধ এমদাদুলের ছেলে শরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে মহুবর গংরা।
শনিবার (১৪ জুলাই) ওই জমির পাশের পুকুরে মাছ ধরতে যান শরিফুল ইসলাম ও তার ভাই আসাদুল হাবিব দুলু। এ সময় মহুবর গংরা হঠাৎ দেশি অস্ত্র ও লাঠি নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে শরিফুলের বাবা মা ও বোন তাদের উদ্ধার করতে এলে তারাও হামলার শিকার হন।
পরে স্থানীয়রা ছুটে এলে মহুবর গংরা পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আসাদুল হাবিব দুলু ও রেবেকা বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকালে আসাদুল হাবিব দুলুর মৃত্য হয়। এ ঘটনায় ১৪ জুলাই রাতেই শরিফুল বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামি করে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
লালমনিরহাট সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজ আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Close