মা ও ছেলে হত্যা : স্বামী ও তৃতীয় স্ত্রী রিমান্ডে

রাজধানীর কাকরাইলে মা ও ছেলে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার আবদুল করিম ও তাঁর তৃতীয় স্ত্রী শারমিন আক্তার মুক্তাকে ছয়দিনের রিমান্ডে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ শুক্রবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তাঁদের হাজির করানো হয়। শুনানি শেষে এ আদেশ দেন মহানগর হাকিম খুরশিদ আলম।

ঢাকার অপরাধ তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার আনিসুর রহমান এনটিভি অনলাইনকে জানান, রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আলী হোসেন উভয়ের ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি শেষে উভয়ের ছয়দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার নির্দেশ দেন আদালত।

আনিসুর রহমান জানান, আসামিদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিল না। মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৪ ডিসেম্বর দিন ধার্য করা হয়েছে।

গত বুধবার কাকরাইলে নিজ ফ্ল্যাটে শামসুন্নাহার ও তাঁর ছেলে শাওনকে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার সময় বাসায় ছিলেন না শামসুন্নাহারের স্বামী আবদুল করিম।

নিহত শামসুন্নাহার আবদুল করিমের প্রথম স্ত্রী। এরপর তিনি আরো দুটি বিয়ে করেন। পুলিশ আবদুল করিমের পাশাপাশি তাঁর তৃতীয় স্ত্রী শারমিন আক্তার মুক্তাকে আটক করে।

শারমিন আক্তার মুক্তা চলচ্চিত্রে অভিনয় করতেন। চলচ্চিত্র প্রযোজনা করতে গিয়ে মুক্তার সঙ্গে পরিচয় হয় আবদুল করিমের। পরে বিয়েও করেন মুক্তাকে। তবে প্রথম স্ত্রী শামসুন্নাহারকে তালাক দেননি তিনি।

Loading...