আন্তর্জাতিক

ভিসা ছাড়াই ১৬৭ দেশ ভ্রমণ করতে পারবে আমিরাতের পাসপোর্টধারীরা

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট এখন সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই)। বৈশ্বিক র‌্যাংকিংয়েও এখন শীর্ষে অবস্থান করছে দেশটি। এই পাসপোর্টধারীরা প্রাক-ভিসা ছাড়াই বিশ্বের ১৬৭টি দেশ ভ্রমণ করতে পারবে।শনিবার ইউএই’র ৪৭তম জাতীয় দিবস এই সুখবর পায় দেশটির জনগণ। পররাষ্ট্র বিষয়ক এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতামন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের প্রচেষ্টায় দেশটি এই সফলতা অর্জন করেছে বলে জানিয়েছে খালিজ টাইমস।এই বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে শেখ আবদুল্লাহ বলেছেন, ইউএই’র প্রতিষ্ঠাতা জনক শেখ জায়েদের অন্যতম একটি স্বপ্নের সত্যিকার প্রতিফলন হলো এটি। বৈশ্বিক পর্যায়ে একটি আত্মবিশ্বাসী এবং সক্রিয় শক্তি হিসেবে ইতিবাচক কূটনীতির মাধ্যমে ইউএই‘র অর্জনগুলোরও একটি উদাহরণ এটি।এদিকে গ্লোবাল সিটিজেন ফোরামের সহযোগী প্ল্যাটফর্ম আর্টন ক্যাপিটালের তৈরি করা দ্য পাসপোর্ট ইনডেক্সের র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থান অধিকার করেছে ইউএই। পাসপোর্টধারীদের চলাচলের স্বাধীনতা এবং ভিসা ছাড়া ভ্রমণের ভিত্তিতে এই র‌্যাংকিং তৈরি করা হয়।২০১৬ সালের ডিসেম্বরে এই র‌্যাংকিংয়ে ২৭তম অবস্থানে ছিল ইউএই’র পাসপোর্ট। এর শীর্ষ পাঁচে আসার জন্য ‘ইউএই পাসপোর্ট ফোর্স’ উদ্যোগ দেশটির পররাষ্ট্র বিষয়ক এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতা মন্ত্রণালয়। অথচ নির্ধারিত সময়ের তিন বছর আগেই একেবারে শীর্ষে চলে এসেছে দেশটি।ইউএই’র পাসপোর্টধারীরা এই র‌্যাংকিংয়ের ৮৪ শতাংশ দেশ ভ্রমণ করতে পারবে। কোনও দেশের পাসপোর্ট শক্তিশালী হলে তা শুধু নাগরিকদের পরিচয় বহন করে না, তাদের বৈশ্বিক সুযোগ-সুবিধা, অবাধ চলাচল এবং জীবনমানেরও নিশ্চয়তা দেয়।আর্টন ক্যাপিটালের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রেসিডেন্ট আর্মান্ড আর্টন বলেছেন, আমরা জাতিসংঘভুক্ত ছয়টি অঞ্চল এবং ১৯৩টি দেশের পাসপোর্টগুলো ধারাবাহিকভাবে তুলনা করে এই ইনডেক্স তৈরি করি। এক্ষেত্রে সরকারি ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসহ সম্ভাব্য সবধরনের সূত্র থেকে সরাসরি তথ্য সংগ্রহ করেছি আমরা।

আরো দেখুন
Close
Close