বিএনপি-জামায়াতকে কোনও ছাড় নয়: নাসিম

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

১৪ দলীয় জোটের মুখপাত্র, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন- ‘ওরা বলেছে অক্টোবর থেকে মাঠে থাকবে। অক্টোবর তোমাদের জীবনে আসবে না। ডিসেম্বরে নির্বাচনের আগে আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে মাঠ গরম করবো।’ এসময় তিনি আরও বলেন-‘বিএনপি-জামায়াতকে কোনও ছাড় দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না’।
শনিবার রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে ১৪ দল আয়োজিত কর্মী সমাবেশে তিনি একথা বলেন। এসময় তিনি ১৪ দলীয় জোট রাজশাহী ও খুলনা বিভাগীয় সমাবেশের পর রাজধানী ঢাকায় মহাসমাবেশ করার ঘোষণা দেন।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন- আগামী ৯ অক্টোবর রাজশাহী, ১০ অক্টোবর নাটোর ও ১৩ অক্টোবর খুলনায় ১৪ দল বিভাগীয় সমাবেশ করবে। তারপর নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সঙ্গে আলোচনা করে অক্টোবরে ঢাকায় মহাসমাবেশ করা হবে।
বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ্য করে নাসিম আরও বলেন- ওরা চেয়েছিল আজকের এই সমাবেশ ভণ্ডুল করার জন্য। বানচাল কর্মসূচি দিয়ে বিএনপি-জামায়াত চক্রান্ত করেছিল যেন মহানগর নাট্যমঞ্চে আমরা সমাবেশ করতে না পারি। আমরা হলাম বাঘের বাচ্চা। আওয়ামী লীগ, ১৪ দলের কর্মীরা বাঘের বাচ্চা। যত বাধা দেবে আমরা তত বেশি অগ্রসর হবো। আজকে কর্মী সভা নয়, জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে।
তিনি বলেন, চক্রান্ত শুরু হয়েছে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরুদ্ধে, বাংলার জনগণের বিরুদ্ধে। এখন ১৪ দলের কর্মীদের, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী কর্মীদের ঘরে বসে থাকার সময় এখন আর নাই। ঘর থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।
বিএনপি-জামায়াতের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, এটা ২০১৪ সাল নয়, ১৮ সাল। তোমাদের মরণকাল এ বছরই হবে। বিএনপি-জামায়াত লোক ভাড়া করছে। পরিত্যক্ত, পলায়নকারীদের ভাড়া করছে। যাদের নীতি নাই, ঠিকানা নাই। পলায়ন করতে অভ্যস্ত নেতাদের ভাড়া করছে। খেলার মাঠে খেলোয়াড় ভাড়া করা যায়, রাজনীতির মাঠে নেতা ভাড়া করা হয় এটা প্রথম দেখলাম। ভাড়াটিয়া দিয়ে কাজ হয় না। একজন বিদেশে বসে আর দুইজন দেশে বসে চক্রান্ত করছে।
জোটের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন- আপনারা সাবধান থাকবেন। আমরা যখন ডাক দিব তখন কেউ ঘরে বসে থাকবেন না। ঘর থেকে বেরিয়ে আসবেন। ১৪ সালে জ্বালাও-পোড়াও করছে, এবার তা হবে না। আমাদের ঐক্য দরকার। মাত্র কয়দিনের নোটিশে আপনারা আজকে এখানে এসেছেন। গণতন্ত্রের বিকল্প হচ্ছে গণতন্ত্র। কোনো অবৈধ সরকারকে ক্ষমতায় আনার চক্রান্ত করছেন, যারা চক্রান্ত করছেন তাদের কালো হাত ভেঙে দেয়া হবে। বিএনপি-জামায়াতকে কোনও ছাড় দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না। শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে, নির্বাচনের ফলাফল যা হবে আমরা মেনে নিব।
আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টার পর থেকে এ সমাবেশ শুরু হয়। ‘বিএনপির অব্যাহত মিথ্যাচার ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে’ক্ষমতাসীন কেন্দ্রীয় ১৪ দল এ সমাবেশের আয়োজন করে।
মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে সমাবেশে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা উপস্থিত আছেন। সমাবেশটি পরিচালনা করছেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক এবং ঢাকা মহানগর ১৪ দলের সমন্বয়ক শাহে আলম মুরাদ।
শনিবার দুপুর দুইটার পর থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতাকর্মীরা মিছিল সহকারে সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করে। রাজধানীর প্রতিটি থানা-ওয়ার্ড থেকে মিছিল সহকারে ১৪ দলের নেতাকর্মীরা সমাবেশে যোগ দেন।
উল্লেখ্য, এর আগে গত সোমবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ধানমণ্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে একটি কমিউনিটি সেন্টারে ১৪ দলের বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন জোটের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম।

ফেসবুক মন্তব্য
Share.