আন্তর্জাতিকপ্রিয় প্রবাসী

প্রবাসীদের জন্য বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত ইকামা অনুমোদন প্রদান করেছে সৌদি সরকার

মঙ্গলবার মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকে ‘প্রিভিলিজ ইকামা’ বা গ্রিন কার্ডের আদলে বিশেষ ইকামা সুবিধার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছেন সৌদি বাদশাহ সালমান । জেদ্দাস্থ আল সালাম প্যালেসে মঙ্গলবার (১৪ মে) রাতে এই যুগান্তকারী সিদ্ধান্তের চূড়ান্ত অনুমোদন দেন বাদশাহ !

প্রিয় পাঠক আমাদের পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন

তারও আগে গত বুধবার ( ৮মে) সৌদি আরবের মজলিশে শুরাতে বিশেষ ইকামার খসড়া প্রস্তাব অনুমোদন পায় ।
বিশেষ ইকামার খবর নানা জন নানাভাবে প্রকাশ করছেন । এমনকি বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমগুলোতেও এর ভুল ব্যাখ্যা দেখা গিয়েছে ।

আদতে বিশেষ ইকামাধারী হতে পারবেন কেবলমাত্র বিশেষ শ্রেণীর মানুষরাই । যারা বিপুল সম্পদশালী । সৌদি আরবে বড় রকমের ইনভেস্ট করার যোগ্যতা যাদের রয়েছে । এবং মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে যারা এই ইকামা গ্রহণ করার সক্ষমতা রাখেন ।

কী কী থাকছে বিশেষ ইকামা সুবিধাতে –

১. এই ইকামাধারীরা তাদের পরিবারের জন্য স্থায়ী ভিসা ও আত্মীয়দের জন্য ভ্রমণ ভিসা ইস্যু করতে পারবেন।

২. নিজেদের নামে ব্যবসা চালাতে পারবেন, কফিল ছাড়াই ।

৩. এদেশে সম্পদ ও যানবাহনের মালিকানা নিতে পারবেন ।

৪. নিজের প্রতিষ্ঠানে নিজের নামেই কর্মী নিয়োগ দানের স্বাধীনতা পাবেন।

৪. ইচ্ছেস্বাধীনভাবে সৌদি আরবের বাইরে এবং অভ্যন্তরে ভ্রমণ বা আসা যাওয়া করতে পারবেন ।

৫. এয়ারপোর্ট এবং প্রাশাসনিক বিভিন্ন কাজে সৌদি নাগরিকদের মতই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সুবিধা পাবেন ।
শুরা কাউন্সিলের সভাপতি শেখ আবদুল্লাহ আল-আশেখ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ৪১তম শুরা কাউন্সিলের সভায় এই যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সম্পদশালী বিদেশীদের আকর্ষণ করাই এই আইনের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিশেষ এই ইকামা সুবিধা নেবার জন্য বিদেশিদের উপর বিশেষ ফি ধার্য করা হবে । বিশেষায়িত এই ইকামাটি প্রদানের জন্য আলাদা কেন্দ্র-ডিপার্টমেন্ট প্রতিষ্ঠা করা হবে।

বিশেষ ইকামা হবে দুই ধরনের :
১) অনির্দিষ্ট (দীর্ঘমেয়াদী) কালের জন্য এবং

২) একবছর মেয়াদী (রিনিউ করার সুযোগসহ)।

কী কী যোগ্যতা লাগবে এই ইকামার আবেদন করতে ?
১. এই ইকামার জন্য আবেদনকারীদের বৈধ পাসপোর্ট অবশ্যই থাকতে হবে ।
২. বড় রকমের ইনভেস্ট করার মত যোগ্যত হবে ।
৩. ব্যবসায়ী বা বড় আকারে ব্যবসা শুরু করার মত আর্থিক স্বচ্ছলতা থাকতে হবে ।
৪. সুস্থ স্বাস্থ্যের অধিকারী হতে হবে ।
৫. অথবা নিজ নিজ পেশায় অত্যন্ত যোগ্যতা এবং দক্ষতার সনদ থাকা জরুরি । যেমন : ডাক্তার , ইঞ্জিনিয়ার ইত্যাদি ।
৬. এবং কোনও প্রকার পূর্ব অপরাধের রেকর্ড থাকা যাবে না

প্রিয় পাঠক আপনার মতামত জানান

এ বিভাগের আরো খবর

Close