পেঁয়াজের কিছু গুনগত মান

পেঁয়াজ আমরা সবাই চিনি। এটি রান্নায় মশলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। প্রায় সব তরকারী, ভাজি, সবকিছুতেই পেয়াজ ব্যবহার করা হয়। কিন্তু পেঁয়াজের আরও কিছু গুনগত মান রয়েছে।

১) স্বাস্থ্যকর ত্বক পেতে সাহায্য করেবায়োটিন স্বাস্থ্যকর ত্বক পেতেও সাহায্য করে থাকে। এছাড়াও নখ ভেঙে যাওয়া, মাথার চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যার ক্ষেত্রেও খুব ভালো কাজ করে থাকে।

২) রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে পেঁয়াজে রয়েছে ভিটামিন-সি এবং ফাইটোকেমিক্যালস যা শরীরের ভিটামিন-সির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে থাকে। যার মানে দাঁড়ায়, এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

৩) খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে পেঁয়াজে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আঁশ। যা খাদ্য খুব ভালোমতো পরিপাক হতে সাহায্য করে থাকে। যার ফলে পেটের ব্যথা এবং কোষ্ঠ্যকাঠিন্যের সমস্যা কমিয়ে আনতে পেঁয়াজ দারুণ উপকারী একটি খাদ্য উপাদান।

৪) রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে পেঁয়াজে থাকা সালফার রক্তকে পাতলা করতে সাহায্য করে বলে এটি রক্তচাপ কমিয়ে আনে। যারফলে হার্ট অ্যাটাক অথবা স্ট্রোক এর সম্ভবনা কমে যায় অনেকখানি। এছাড়াও পেঁয়াজে থাকা ‘কোএরসেটিন’ আর্টারিতে যেকোন ধরণের প্রতিবন্ধকতা (ব্লক, ক্লগ) তৈরি বাধা দান করে থাকে। এতে করেও হার্ট অ্যাতাক এবং স্ট্রোক এর সম্ভবনা অনেকখানি কমে যায়।

৫) হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি করেপেঁয়াজ বয়স্ক নারীদের হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধিতেসাহায্য করে থাকে। গবেষণা থেকে দেখা গেছে, মেনোপজের সময়কালীন নারীরা তাদের প্রতিদিনের খাবারে পেঁয়াজ রাখলে তাদের শরীরে রোগ আক্রান্তের ঝুঁকি কমে যায় ২০% পর্যন্ত।

৬) কোলেষ্টেরল এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়ার ফলে এইচডিএল (HDL – High Density Lipoprotein)এর বৃদ্ধি ত্বরান্বিত হয়ে থাকে। এইচডিএল হলো ভালো কোলেষ্টেরল। যা শরীরকে সুস্থ রাখতে সাহায্যকরে থাকে।

৭) এছাড়াও পেঁয়াজের রস চুল পড়া কমায়। সপ্তাহে দুদিন মাথার তালুতে পেঁয়াজের রস দিলে চুল পড়া অনেকটা কমে যায়।

Loading...