পদ্মাপাড়ে কালাই-রুটির আড্ডায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

রাজশাহী এসে মঙ্গলবার বিকেলে বলেছিলেন কাল (বুধবার) কলাইয়ের রুটি খেতে যাবো। সকালে সেই কথা রাখলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ঘড়ির কাঁটায় তখন সকাল সাড়ে ৬টা। রাজশাহী মহানগরী শ্রীরামপুর পদ্মার পাড়। শহররক্ষা বাঁধের ওপর দোকান বিছিয়ে কেবলই কালাই-রুটিতে তা দেওয়া শুরু করেছেন দোকানিরা। এ সময় হাঁটতে হাঁটতে সেখানে উপস্থিত হন সেতুমন্ত্রী। ওপরে চট টাঙানো। নিচে প্লাস্টিকের চেয়ার। তার ওপরেই বসে পড়লেন মন্ত্রী। গরম গরম কালাই-রুটি খেলেন আর আদা চা পান করেলেন। এ সময় তেমন কেউ না থাকলেও কর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রাণ খুলে কথা বলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের দুইদিনের রাজশাহী সফরের দ্বিতীয় দিনের সকালটা ছিল এমনই। আজ সকালে সেতুমন্ত্রী রাজশাহী সার্কিট হাউস থেকে হাঁটতে বের হন। আর হাঁটতে হাঁটতে তার চিরচেনা স্বভাবে ফিরে আসেন। মিশে যান সাধারণ মানুষের সঙ্গে। কথা বলেন সমসাময়িক রাজনীতি, অর্থনীতিসহ নানান বিষয় নিয়ে। সকাল বেলায় তাকে কাছে পেয়ে তরুণরা মোবাইল ফোনে সেলফিও তোলেন মন্ত্রীর সঙ্গে। সকালের এই আড্ডায় মন দিয়ে শোনেন সাধারণ মানুষের জীবন ও জীবিকার কথা। এ সময় পদ্মাপাড়ের স্থানীয় মানুষ তাকে কাছে পেয়ে বিভিন্ন অভাব-অভিযোগের কথা তুলে ধরেন। সব শোনার পর সবাইকে আশ্বস্তও করেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি রাজশাহীর প্রেমে পড়ে গেছি না এসে পারব না। আবারও আসবো। আর এবার এলেও কালাই-রুটি খাব। পরে মন্ত্রীও তার কালাই-রুটি দিয়ে নাশতার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টু্ইটারে পোস্ট করেন। এর আগে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী এসে বলেছিলেন, আবার কখনও রাজশাহী আসলে কালাই-রুটি খাবেন। আট মাস পর আবার আসলেন। পদ্মাপাড়ে গিয়ে চটের নিচে বসে কালাই-রুটি খেলেন। মেতে উঠলেন আড্ডায়।

ফেসবুক মন্তব্য
Share.