চুক্তিভঙ্গ করে সিরিয়ার সন্ত্রাসীদেরকে ৫০০ ট্রাক অস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

তুরস্কের সঙ্গে করা চুক্তিভঙ্গ করে সিরিয়ার মানবিজ শহরের পিপল’স প্রটেকশন ইউনিটস(ওয়াইপিজি) সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে ৫০০ ট্রাক অস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শুক্রবার (১২ অক্টোবর ২০১৮) তুর্কি গণমাধ্যম ‘ইয়েনিসাফাক’ জানায়, এক সপ্তাহ আগে ‘কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স’ পার্টি’র(পিকেকে) এই শাখাকে এসব অস্ত্র পাঠানো হয়।

অস্ত্রের পাশাপাশি চারটি নির্মাণ যান পাঠিয়ে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আলেপ্পো প্রদেশের উত্তর-পূর্বের এই শহরে বাঁধ নির্মাণ এবং পরিখা খনন অব্যাহত রাখতে সন্ত্রাসীদেরকে অনুমতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্র জাহাজে করে ওয়াইপিজি/পিকেকে সন্ত্রাসীদেরকে ওশকোশ ডিফেন্স’র তৈরি বেশকিছু ‘এম৯৮৪এ৪ রিকভারি ট্রাক’ পাঠিয়েছে বলেও জানা গেছে। এগুলো দূর্গনির্মাণে ব্যবহৃত হবে বলে ধারণা প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের।

গত বৃহস্পতিবার সিরিয়ার ‘কামিশলি ফর দ্য সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস’কে(এসডিএফ) তিন শতাধিক অস্ত্রবাহী জাহাজ এবং সামরিক উপকরণ পাঠানোর অনুমতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক জোট। ওয়াইপিজি’র সন্ত্রাসীদের নিয়েই গঠিত এই এসডিএফ।

জোটের সহায়তার অংশ হিসেবে এসডিএফ’কে কমপক্ষে দুটি ‘লেনকো বিয়ারক্যাট’ সাঁজোয়াযান পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ম্যাসাচুসেটস ভিত্তিক লেনকো ইন্ডাস্টিজ’র এই সাঁজোয়াযান ১২ জন সামরিক কর্মকর্তা বহনে সক্ষম।

এসব যান সংগঠনটি স্থানীয় এলাকা এবং শহরের কেন্দ্রে টহল দেয়ার কাজে ব্যবহার করে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক সম্মিলিতভাবে পিকেকে’কে একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। এই বছরের জুনে মানবিজে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে ওয়াইপিজি/পিকেকে সন্ত্রাসীদের প্রত্যাহারে সম্মত হয় তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্র।

ফেসবুক মন্তব্য
Share.