রাজনীতি

গণপিটুনি বিএনপি-জামায়াতের কৌশল: আইনমন্ত্রী

গণপিটুনি নিছক কোনো দুর্ঘটনা নয় বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

প্রিয় পাঠক আমাদের পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন

তিনি বলেছেন, ‘এটা বিএনপি-জামায়াতের একটি নিখুঁত পরিকল্পনা বা কৌশল। দেশকে অস্থিতিশীল করতে তারা এটা করতে পারে। তাই জনগণকে বলে বোঝাতে হবে, তারা যেন গণপিটুনি দিয়ে নিজের হাতে আইন তুলে না নেন।

আজ সোমবার বিকেলে নেত্রকোনা শহরের কুড়পাড় এলাকায় জেলা আইনজীবী সমিতির নতুন নির্মিত পাঁচতলা ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে কোন একটা ঘটনা ঘটলে তারপর কিছুদিন ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে। যেমন পুরান ঢাকায় অগ্নিকাণ্ডের পরবর্তী কিছুদিনের মধ্যে পরপর কয়েকটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো। আবার পরপর কয়েকটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটলো। এখন আবার গণপিটুনি দিয়ে সাধারণ মানুষকে মেরে ফেলার ঘটনা ঘটছে।

তিনি বলেন, এগুলো নিছক দুর্ঘটনা নয়। এগুলো আসলে বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের নিখুঁত ষড়যন্ত্র। তাই এ ব্যাপারে আমাদের সজাগ থাকতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘পদ্মা সেতু নিয়ে সৃষ্ট গুজবে কান দিয়ে যারা গণপিটুনিতে নিরপরাধ মানুষ হত্যা করবে, আইন নিজের হাতে তুলে নেবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। বিচার বিভাগে যারা আইনজীবী আছেন, বিচারক আছেন, তারাই জনগণকে ন্যায় বিচার দিয়ে যাবেন।’

আনিসুল হক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের আইনের শাসনের পথ দেখিয়েছেন। তিনি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছেন। বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার করেছেন। জনগণ বুঝতে পেরেছে, বিচার যত দেরিই হোক না কেন অপরাধীকে একদিন না একদিন কাঠগড়ায় দাঁড়াতেই হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আইনের শাসন একদিনে প্রতিষ্ঠা হয় না। আইনের শাসন যখন প্রতিষ্ঠা হয় তখন দেশের সবকিছু এগিয়ে যায়। আমরা সেই পথেই এগোচ্ছি। তাই যারা দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন তারা কখনোই সফল হতে পারবেন না। সবাই নিয়ে এদের প্রতিহত করা হবে।’

তিনি বলেন, সংসদের আগামী অধিবেশনে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল আইন সংশোধন করে যুগ্ম জেলা জজের পাশাপাশি সহকারী জজ ও সিনিয়র সহকারী জজকে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের মামলা পরিচালনার এখতিয়ার দেওয়া হবে।

প্রিয় পাঠক আপনার মতামত জানান

এ বিভাগের আরো খবর

Close