প্রযুক্তি

কী থাকছে অ্যাপলের নতুন অপারেটিং সিস্টেমে?

পারফরমেন্স

আইফোন ফাইভ এস বা আইপ্যাড এয়ারের মতো পুরোনো ডিভাইসগুলোতে ভালোভাবে চালানোর জন্য উপযোগী করা হয়েছে আইওএস ১২-কে। যার কারণে কোনো অ্যাপ চালু করতে আগের চেয়ে ৪০ভাগ কম সময় লাগবে আর মাল্টিটাস্কিংয়ে ব্যবহার করা যাবে আগের চেয়ে আরো বেশি অ্যাপ। তাছাড়াও লক স্ক্রিন থেকে ক্যামেরা চালু হবে আগের চেয়ে ৭০ ভাগ দ্রুত, কিবোর্ড চালু হবে ৫০ভাগ দ্রুত আর শেয়ার শিট চালু হবে আগের চেয়ে অর্ধেক সময়ে।

কনফারেন্স ফেস টাইম

আইওএস ১২-এর ফেস টাইম ব্যবহার করে ৩২জন ব্যবহারারীর সঙ্গে একইসময়ে অডিও বা ভিডিও কলে যু্ক্ত হওয়া যাবে। এছাড়া টেক্সট ইফেক্ট যুক্ত করার সুবিধা থাকছে ছবি বা ভিডিওতে। আর এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশন ব্যবস্থা থাকার কারণে সুরক্ষিত থাকবে আলাপচারিতার গোপনীয়তা।

মেসেজিং

বার্তা যিনি পাঠাচ্ছেন, তাঁর মনের ভাব এখন যেরকম, তা প্রকাশ পাবে বার্তায় যুক্ত করা মিমোজিতে, তাছাড়া ক্যামেরায় ধারণ করা যাবে সর্বোচ্চ ৩০ সেকেন্ডের এনিমোজি (এনিমেটেড ইমোজি)। আপনার নড়াচড়া আর জিভের অবস্থান থেকেই মিমোজি এই এনিমোজি তৈরি করতে সক্ষম। ছবির মানোন্নয়নের জন্য ক্যামেরায় আরো অনেক ইফেক্টের সাথে সাথে থার্ড পার্টি স্টিকার যুক্ত করার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

 

স্ক্রিন টাইম

ব্যবহারকারী কোনো অ্যাপ বা ওয়েবসাইট দেখে কতক্ষণ সময় তার মোবাইলে ব্যয় করছেন, তা জানার এবং নিয়ন্ত্রণ করার উপায় করে দিয়েছে নতুন এই অপারেটিং সিস্টেম। দিনে বা সপ্তাহে কতক্ষণ সময় আপনি অ্যাপ চালিয়ে, নোটিফিশেন দেখে বা ফোনে কথা বলে কাটালেন, তার বিস্তারিত তথ্য আপনাকে জানাবে স্ক্রিন টাইম। আর বাবা মা নির্ধারণ করে দিতে পারবেন তার বাচ্চারা কতক্ষণ সময় ফোনে গেম খেলে বা অ্যাপ চালিয়ে কাটাতে পারবে।

এছাড়াও ডু নট ডিস্টার্ব, গ্রুপড নোটিফিকেশনস, অগমেন্টেড রিয়েলিটি, নতুন ফটো অ্যাপ, অধিক কর্মক্ষম ক্যামেরা, নতুন সিরি ফিচার আর নিরাপত্তা ও গোপনীয়তার উন্নততর ফিচারে সজ্জিত হয়ে আসছে নতুন এই অপারেটিং সিস্টেম। এখন অপেক্ষা খালি নিজের হাতে যাচাই করে দেখার কেমন হলো নতুন এই আপডেট।

 

আরো দেখুন
Close
Close