আন্তর্জাতিক

এবার বিশ্বের সবচেয়ে বড় লবণের গুহা পাওয়া গেল ইসরায়েলে!

একটা  বিশাল বড় গুহা। স্বচ্ছ স্ফটিকের দ্যুতিতে ঝলমল করছে গুহার দেয়াল। ভেতরে কোথাও আবার লাঠির মতো অংশ যার গা বেয়ে চুঁইয়ে পড়ছে পানি। এর পুরোটাই লবণের তৈরি। ডেড সির কাছেই এমন একটি গুহার খোঁজ পেয়েছেন হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।তাদের দাবি, এটিই বিশ্বের দীর্ঘতম সল্ট কেভ বা লবণের গুহা। আগে ইরানের নামাকদান গুহার দখলে ছিল এ রেকর্ড। নতুন খোঁজ পাওয়া গুহাটির নাম মালহাম। এটা ইসরায়েলে অবস্থিত যা মাটির নিচে ১০ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত।গুহাটি ইসরায়েলের বৃহত্তম সোদম পাহাড় বেয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কাছে মৃত সাগর বা ডেড সিতে গিয়ে শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। এর ব্যাপ্তি এতোটাই যে, একে বড় শহর বলা শুরু করেছেন গবেষকদের একাংশ। গুহাটিতে ১০০টিরও বেশি কক্ষ রয়েছে।

বিডিটাইপ

এর মধ্যে একটি কক্ষ প্রায় ৫,৬৮৫ মিটার পর্যন্ত বিস্তৃত।ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার জানিয়েছে, দুবছর আগে ইসরায়েলের ইয়োয়াভ নেগেভ ফ্রামকিন এই গুহা খোঁজার অসমাপ্ত কাজ শেষ করার উদ্যোগ নেন। এতে তিনি বুলগেরিয়ার গুহা গবেষকদের অন্তর্ভুক্ত করেন।ইউরোপীয় ৮টি এবং স্থানীয় ২০টি, মোট ২৮টি দল নিয়ে নেগেভ একটি দল গঠন করেন। এ দলের সঙ্গে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক বোয়াজ ল্যান্ডফোর্ড ও তার দল। সব মিলিয়ে ১ হাজার ৫০০ দিন ধরে এই গুহার মানচিত্র তৈরি করা হয়।হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক এফ্রেম কোহেন জানান, এই স্থানটি প্রথম শনাক্ত করা হয়েছিল ৩০ বছর আগে। অবশ্য এই গুহাটি সাত হাজার বছরের পুরনো। লবণের সঙ্গে আকরিক আর পানি মিশে এটা তৈরি হয়েছে।

এ বিভাগের আরো খবর

Close