ঋণ পেতে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব, অতঃপর..

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

বড় অংকের ঋণ নিতে ব্যাংকে গিয়েছিলেন এক তরুণী। ব্যাংকে গিয়ে কথা বলার পর সেটা দিতেও রাজী হয়েছিলেন ব্যাংক ম্যানেজার। কিন্তু বিনিময়ে একটা শর্ত জুড়ে দেন। তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে হবে। একথা শোনার পর ক্ষুব্ধ হয়ে ব্যাংক ম্যানেজারকে রুম থেকে বের করে বেধড়ক মারধর করেন ওই তরুণী। যে ঘটনার ৫০ সেকেন্ডের ভিডিওটি ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে নেটদুনিয়ায়। অনেকেই তরুণীকে ‘সাহসী’, এমনকি ‘যোদ্ধা’-র আখ্যাও দিয়েছেন। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বেঙ্গালুরু থেকে ২৬০ কিলোমিটার দূরে কর্ণাটকের দাওয়ানগিরিতে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, ওই তরুণী ১৫ লক্ষ টাকা ঋণ নেওয়ার জন্য ওই ব্যাংক গিয়েছিলেন। ঋণের জন্য কথা বলতে ব্যাংক ম্যানেজারের ঘরে ঢুকেছিলেন তিনি। ব্যাংক ম্যানেজার ঋণ দিতে রাজি হয়ে যান। বিনিময়ে তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দেন। এতেই রেগে যান তরুণী। কলার ধরে ম্যানেজারকে বাইরে বার করে আনেন। তার পর একহাতে জামার কলার এবং অন্য হাতে একটি মোটা লাঠি দিয়ে ক্রমাগত মারতে শুরু করেন তাঁকে। একটা সময় লাঠিটা ধরে ফেলেন ম্যানেজার, কিন্তু তাতেও দমানো যায়নি তরুণীকে। তিনি কয়েকবার লাথিও মারেন ওই ম্যানেজারকে। তারপর পা থেকে জুতা খুলে নিয়েও মারতে শুরু করেন।

এই ঘটনা যখন ঘটছে তখন বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজন পুরো ঘটনার ভিডিও তুলে রাখেন। তাঁদের উদ্দেশ্যেও তরুণীকে বলতে শোনা গেছে, ‘যত খুশি ভিডিও করুন, আমি এতটুকু ভুল করছি না।’

ভিডিওটি দেখুন এইখানে ক্লিক করে

ফেসবুক মন্তব্য
Share.