ইমার্জেন্সি পিল নিয়ে ভুল ধারণা

বর্তমান প্রজন্ম সচেতন হলেও অনেক সময় যৌনমিলনে প্রতিরোধক ব্যবহার করতে ভুলে যান কিংবা ইচ্ছাকৃতভাবেই ব্যবহার করেন না। তখনই প্রয়োজন হয় ইমার্জেন্সি কন্ট্রোসেপটিভ পিলের। তবে এই পিল সবেন নিয়ে রয়েছে অনেক ভুল ধারণা কুসংস্কার, সচেতন হলেই যেগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া সম্ভব।

১. অনেকেই মনে করেন, ইমার্জেন্সি পিল সকাল ছাড়া অন্য সময় খেলে কাজ হবে না। সত্যিটা হলো, তিন দিনের পিল গুলো ৭২ ঘন্টা এবং ৫ দিনের পিলগুলো ১২০ ঘন্টার যে কোনো সময় সেবন করা যায়। তবে অরক্ষিত যৌন মিলনের পর যত তাড়াতাড়ি এই পিল সেবন করা যায়, ততই এটি কাজ করার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

২. অনেকেই মনে করেন ইমার্জেন্সি পিল কিনতেও ডাক্তারের প্রেসকিপশন দরকার। জেনে রাখুন, আপনি চাইলে যেকোনো সময় কাছের ওষুধের দোকানে গিয়ে চাইতে পারেন ইমার্জেন্সি পিল। এর জন্য কোনো লিখিত অনুমোদনের দরকার নেই।

৩. ইমার্জেন্সি নিয়ে সবচেয়ে বড় ভুল ধারণাটি হলো, এটির সেবন আর গর্ভপাত একই কথা। এটা পুরোপুরি একটি কুসংস্কার। কারণ ডিম্বাণুর সঙ্গে শুক্রাণুর মিলনের মাধ্যমে ভ্রূণের নিষিক্ত হতে কমপক্ষে ৫ দিন সময় লাগে। ইমার্জেন্সি পিলের কাজ এই সময়ের মধ্যে ডিম্বাণুর উর্বরতা কমিয়ে দেওয়া অথবা উর্বর ডিম্বাণুকে শুকাণুর সঙ্গে মিলনে বাধাগ্রস্ত করা। অর্থাৎ ভ্রূণ নিষিক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া থামানোই এর মূল কাজ। সুতরা!- যেখানে ভ্রুণই তৈরি হয়নি, সেখানে ভ্রুণ হত্যার প্রশ্ন তো আসবেই না!

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ‘ঝিনুকদহ ভাষা পরিষদের’ ঘোষিত তিন দিনের কর্মসূচী সফল ভাবে পালিত

» শুভ জন্মদিন- সাদিদুল ইসলাম (সাদিদ)

» কে এই সুন্দরী পুলিশ অফিসার

» চাকরি শুধু নগ্ন হয়ে বসে থাকা, বেতন জানলে চমকে যাবেন

» জামিনে এনে আসামিকে বিয়ে, আইনজীবীকেই হত্যা!

» চসিকের গৃহকর আপিল শুনানি ও অ্যাসেসমেন্ট স্থগিত

» ঝিনাইদহে ‌ঝিনুকদহ ভাষা পরিষদ-র অালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» পৃথিবীর বাইরে প্রাণের সন্ধান !

» গ্রাম থেকে আসা সেই মানশি এখন কোটি কোটি তরুণীর আদর্শ!

» সিএনজি অটোরিকশাও মিলবে অ্যাপে, ঘোষণা শিগগিরই

» মাগুরায় চলছে অবৈধ সিমের বাজার

» আয়ুর্বেদিক উপাদান হিসেবে নিম পাতার ব্যবহার

» চাঁদে ৫০ কিলোমিটার সুড়ঙ্গের হদিস মিলেছে

» আইফোন এক্সের ভেতরে যা রয়েছে ভিডিও সহ দেখুন

» নেকলেস পরার সঠিক কায়দা-কানুন

Design & Devaloped BY MyhostIT

,

ইমার্জেন্সি পিল নিয়ে ভুল ধারণা

বর্তমান প্রজন্ম সচেতন হলেও অনেক সময় যৌনমিলনে প্রতিরোধক ব্যবহার করতে ভুলে যান কিংবা ইচ্ছাকৃতভাবেই ব্যবহার করেন না। তখনই প্রয়োজন হয় ইমার্জেন্সি কন্ট্রোসেপটিভ পিলের। তবে এই পিল সবেন নিয়ে রয়েছে অনেক ভুল ধারণা কুসংস্কার, সচেতন হলেই যেগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া সম্ভব।

১. অনেকেই মনে করেন, ইমার্জেন্সি পিল সকাল ছাড়া অন্য সময় খেলে কাজ হবে না। সত্যিটা হলো, তিন দিনের পিল গুলো ৭২ ঘন্টা এবং ৫ দিনের পিলগুলো ১২০ ঘন্টার যে কোনো সময় সেবন করা যায়। তবে অরক্ষিত যৌন মিলনের পর যত তাড়াতাড়ি এই পিল সেবন করা যায়, ততই এটি কাজ করার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

২. অনেকেই মনে করেন ইমার্জেন্সি পিল কিনতেও ডাক্তারের প্রেসকিপশন দরকার। জেনে রাখুন, আপনি চাইলে যেকোনো সময় কাছের ওষুধের দোকানে গিয়ে চাইতে পারেন ইমার্জেন্সি পিল। এর জন্য কোনো লিখিত অনুমোদনের দরকার নেই।

৩. ইমার্জেন্সি নিয়ে সবচেয়ে বড় ভুল ধারণাটি হলো, এটির সেবন আর গর্ভপাত একই কথা। এটা পুরোপুরি একটি কুসংস্কার। কারণ ডিম্বাণুর সঙ্গে শুক্রাণুর মিলনের মাধ্যমে ভ্রূণের নিষিক্ত হতে কমপক্ষে ৫ দিন সময় লাগে। ইমার্জেন্সি পিলের কাজ এই সময়ের মধ্যে ডিম্বাণুর উর্বরতা কমিয়ে দেওয়া অথবা উর্বর ডিম্বাণুকে শুকাণুর সঙ্গে মিলনে বাধাগ্রস্ত করা। অর্থাৎ ভ্রূণ নিষিক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া থামানোই এর মূল কাজ। সুতরা!- যেখানে ভ্রুণই তৈরি হয়নি, সেখানে ভ্রুণ হত্যার প্রশ্ন তো আসবেই না!

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



   

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিতঃ ২০১৭ । বিডি টাইপ পত্রিকা আগামী প্রজন্মের মিডিয়া

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি